আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ১১:২১

বার : শুক্রবার

ঋতু : হেমন্তকাল

প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই পরীক্ষা দেবে, এমন চিন্তা সরকারের

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলেও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সাময়িক পরীক্ষা নেয়া হবে। তবে এই পরীক্ষা যেন বাসায় বসে শিক্ষার্থীরা দিতে পারে সেই চিন্তা করছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শিক্ষকরা প্রশ্ন তৈরি করে শিক্ষার্থীদের বাসায় পাঠাবেন। সেসব খাতা শিক্ষকরা মূল্যায়ন করে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের কাছে ফলাফল পৌঁছে দেবেন। এ জন্য বেশকিছু ভলেন্টিয়ার (স্বেচ্ছাসেবী) নিয়োগ দেয়া হবে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গত দুই মাস ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। গত ১৫ থেকে ২৪ এপ্রিলের মধ্যে প্রাথমিকের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় তা বাতিল করা হয়। বর্তমানে দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা আয়োজন নিয়েও অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরীক্ষার রুটিনে দেখা গেছে, প্রথম শ্রেণি থেকে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত প্রথম সাময়িক পরীক্ষা- ১৫ থেকে ২৪ এপ্রিলের মধ্যে, দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা- ৯ থেকে ২০ আগস্টের মধ্যে, প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা- ১৯ থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।

এ ছাড়া ১ম থেকে ৪র্থ শ্রেণি পর্যন্ত বার্ষিক পরীক্ষা ২ থেকে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে গত দুই মাস ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি অনুকূলে না আসায় আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত ছুটি বাড়ানো হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা সম্ভব হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category