আজ ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ১০:৩৩

বার : বৃহস্পতিবার

ঋতু : হেমন্তকাল

কামরানের মৃত্যুতে চুনারুঘাট সমিতি সিলেটে”র সদস্য তরপদার জামালের গভীর শোক প্রকাশ

 

সিলেট প্রতিনিধিঃ- চুনারুঘাট সমিতি সিলেটে”র কার্যনির্বাহী কমিটির সম্মানিত সদস্য, সিলেট ইদ্রিস মার্কেটে তাজুল এয়ার সার্ভিসে’র ব্যবসায়ী, বাংলাদেশ ফেইসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাব কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক তরুণ সমাজসেবক, চুনারুঘাট সমিতি সিলেটে”র আজীবন সম্মানিত সদস্য, তরপদার জামাল জানান, সিলেট বিভাগের গণমানুষের নেতা আমাদের প্রিয় বদরউদ্দিন আহমদ কামরান সাহেব আর নেই, মেনে নিতে পারছিনা। বদর উদ্দিন আহমদ কামরান উনি একটি আবেগ গরীবের একটি শক্তি অনুভূতির নাম, ধনী দরিদ্র নানান পেশা শ্রেণীর মানুষের ছিল শেষ আশ্রয়স্হল।

তিনি বলেন তার জানা মতে শহরে বহিরাগত অনেক মানুষ বসবাস করেন সিটি শহরে, এই মানুষ গুলি নানান সমস্যা নিয়ে উনার কাছে যেত এবং তিনি যথাসাধ্য চেষ্টা করতেন,যে কোন জিনিস সমাধানের জন্য, তিনি কিন্তু উচ্চতর ডিগ্রী অর্জন না করলেও সকলকে তিনি তার বিবেক বিবেচনায় মানুষের মন জয় দিয়ে ও নম্ন আচারণ দিয়ে উভয় ব্যক্তির বিষয় আসয় সমাধান করতেন, আমি নিজে দেখেছি,কামরান সাহেবের সাথে আমার প্রায় ১১ বৎসরের পরিচয়। যার বাড়ী বাসা যেথে কোন দারোয়ান বা গেইট তালা বিহীন সকল মানুষের যাতায়াত করত অনুমতি ছাড়া উন্মুক্ত ডুকতেন সাধারণ মানুষ ” তখন থেকেই লিডার সম্মদন করে আসছিলাম,পরে এক আত্মীয় বন্ধনে উনাকে মামা ডেকে এসে ছিলাম,উনি তখন থেকে আমাকে হবিগঞ্জের ভাগ্নে ডাকতেন ” প্রয়োজনে উনাকে আমি ফোন করতাম দেখা হলে বা কোন কাজে ফোন দিয়েছি, ফোন ধরে কথা বলতেন কি পবলেম ভাগ্নে বল, এই ভাবে কথা হত কামরান মামার সংঙ্গে ,সুখে দূঃখে হবিগঞ্জের অনেক রোগী আসলে ওসমানী হাসপাতালে ভালো চিকিৎসার জন্য ফোন দিলে ডঃদের বলে দিতে আপনারা সহযোগিতা করিয়েন রোগীরা অসহায় সাহায্য করিয়েন তাদের এ ভাবে আর কত কিছু সাহায্য সহযোগিতা আমরা পেয়েছি উনার কাছ থেকে একদিন, আমাদের চুনারুঘাটের নোয়ানী গ্রামের একই পরিবারের একদিনে ৪ জন লোক এম্বুলেন্স গাড়ী এক্সিডেন করে চিকিৎসায় এসে ওসমানী হাসপাতালে মারাগেল আমি সংঙ্গে সংঙ্গে উনাকে ফোন দিলাম,

ফোন দেওয়াতে উনি মেডিকেল পরিচালক কে বললেন সর্বাত্মক সহযোগিতা করার জন্য এই ভাবে অনেক কিছু সহযোগিতা করছেন হবিগঞ্জের মানুষের জন্য, বলে শেষ করার মত নয় আজ সবাই সৃতি এই ভাবে ফোন দিলে,অনুস্বরণ করতেন,যে কোন সহযোগিতার জন্য গেলে বলতেন যাও কাজ কর এর প্রতিধান আল্লাহ দিবে। তাদের কাছে প্রয়োজনের জন্য আমাকে ফোন ধরিয়ে দিও আমি কথা বলব,তখন একটি ভাল কাজ করতে মনে সাহস যোগাত অন্য রকম, মৃত্যুর ১ দিন আগে শিপলু ভাইয়ের সাতে ২মিঃ কথা হল মামা কেমন আছেন, তখন উনি বলেন ব্যস ভালো দোয়া কর সবাই কে বলবা, বাবার জন্য দোয়া করার লাগি, এই বলে শেষ কথা ,দোয়া করছি আর তাই অধীর আগ্রহে অপেক্ষার পহর গুনছি সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন মামা” ১দিন পর যখন ঘুম থেকে উঠে মোবাইল হাতে নেই, দেখি মোবাইলে ১৩ টা কল,সিলেটের প্রতিবেশীর ও বন্ধু দের তখন-ই মনে কেমন যেন একটা অনুভব অনূভুতি হল, সাথে সাথে দেখি আমার বায়রা উনার বাসার কাছে বাসা উনার, উনি ফোন দিলেন,ফোন টা হাতে নিলাম রিসিভ করার সাথে সাথে উনি বলেন, কামরান চাচা তো নেই,তখন যেন উনার সাথে কি কথা বলবো ভাষা বন্ধ হয়ে গেছে, গুরছে পৃথিবী আমার৷ তখনও কিন্তু কেন জানি বিশ্বাস হচ্ছে না, বায়রার কথা, তার পর নেট চালু করে ফেইসবুক চালু করালাম

, তখন অনেকর পোস্ট দেখলাম, দেখে নিজে কে আর সামলাতে পারিনি কি করবো তখন আস্তে আস্তে বাকরুদ্ধ হয়ে গেলাম, দেখে দু চোখে অজস্র পানি আসল,একি বিধির নিয়তির খেলা, ভারাক্রান্ত কন্ঠে মামার শেষ কথা আর হল না,আমার সাথে, ভাবছিলাম দিনে ফোন দিবো কিন্তু দেওয়া হল না, এই কষ্ট রয়ে গেল অন্তরে। দেখলাম,উনার জন্য ” মৃত্যুর কথা শুনে সাধরণ মানুষ থেকে শুরু করে নেতা কর্মী, সকল মানুষ ও শুভাকাঙ্ক্ষী অনেকেই কন্নায় ভেঙ্গে পড়েছে, এবং আমাকে কেঁদে কেঁদে অনেক ফোন দিয়েছে আর আপসুচ করছে, উনার ভালবাসার আবেগে, সত্যি বলতে উনার সাধারন মানুষের মধ্যে ভালবাসা অবিরাম মুহূর্তে ছিলো। আমি খুব কাছে থেকে দেখেছি, বিগত সিটি নির্বাচনে পরাজয়ের পর কাছে গিয়ে দেখা হওয়ায় পর খুবই টলমল চোখে অজস্র ভালবাসা দিয়ে স্নেহ ময় ভাষায় বললেন, দোয়া কর আমরা হারিনি হেরেছে সিলেটের বিবেক, কামরান মামা শুধু সিলেট বাসীকে কাঁদাননি, সারাদেশবাসীকে কাঁদিয়েছেন।

অসংখ্য মানুষের মনের মনিকোঠায় স্হান করে নিয়েছেন,সেটা এই দু দিনের ফেইসবুকের পোস্টের অভিব্যক্তির প্রমান। সিলেট চুনারুঘাট সমিতি”র সদস্য তরপদার বলেন তার সোস্যাল মিডিয়াতে জননেতা কামরানের মৃত্যু তে শোক প্রকাশ করে একটি হৃদয়বিদারক স্ট্যাটাস দেন । তিনি বলেন (বিদায় কামরান মামা বিদায়) আর কি কখনো দেখা হবে Badar Uddin Ahmed Kamran মামা,একসাগর অভিমান বুকে নিয়ে বড্ড অসময়ে আমাদের একা করে আপনি চলে গেলেন,যদিও আপনাকে আমরা মামা বলে ডাকি,কিন্তু আপনি ছিলেন, পরিবারের পরে সিলেটের, অভিভাবক আমার বিবাহ থেকে শুরু করে সব কিছুর দায়িত্ব ছিল আপনার হাতে, পিতৃতুল্য ,আপনার কাছ থেকে যে

স্নেহ মায়া মমতা আদর ভালোবাসা পেয়েছি আজীবন কৃতজ্ঞচিত্বে তা স্মরণ করবো। ভালো থাকুন আমার প্রিয় কামরান মামা,ভালো থাকুন নগরবাসীর প্রিয় কামরান ভাই,ভালো থাকুন গরীবের বন্ধু কামরান ভাই,পরম করুণাময় আল্লাহতালা আপনাকে ভালো রাখুন। অগনিত ভক্তবৃন্দকে কাঁদিয়ে এভাবে না ফেরার দেশে চলে যাবেন তা ভাবতেই কষ্ট লাগে। আল্লাহ পাক আপনার কাছে মিনতি দুনিয়াতে আপনি যে ভাবে সম্মান দিয়েছিলেন মামাকে , আখেরাতে সম্মান দিয়ে জান্নাতুল ফেরদৌসের নচীব করুন ( আমীন) ” স্বরণীয় শোকবার্তায়

 

আপনি অমর আমাদের মাঝে দুঃখ ভারাক্রান্তেঃ-

চুনারুঘাট সমিতি সিলেট।

সকল সদস্য”র পক্ষে

তরপদার জামাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category