আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ১১:৫৯

বার : বৃহস্পতিবার

ঋতু : বর্ষাকাল

বানিয়াচংয়ে হ্যান্ডকাফসহ ছিনিয়ে নেয়া আসামি গ্রেফতার হয়নি ৯ দিনেও

 

পলাশ পাল স্টাফ রিপোর্টারঃ

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় চার পুলিশ সদস্যকে পিটিয়ে হ্যান্ডকাফসহ আসামি ছিনিয়ে নেয়ার ৯ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত সেই আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে খুব দ্রুত তাকে গ্রেফতারের আশা করছেন তারা।

এদিকে, আসামীর স্বজনদের হামলায় গুরুত্বর আহত পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) তোয়াহা এখনও রাজধানী ঢাকার রাজারবাগ পুলিশলাইন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছেন। তার অবস্থার বেশ উন্নতি হলেও পুরোপুরি সুস্থ হতে অনেক বাকি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গত ১৪ অক্টোবর (বুধবার) রাত ৮টার দিকে বানিয়াচং উপজেলার দক্ষিণ সাঙ্গর গ্রামের একটি মামলার আসামি বুলবুল মিয়াকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময় আসামির স্বজনরা পুলিশের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। একপর্যায়ে তারা চার পুলিশ সদস্যকে পিটিয়ে হ্যান্ডকাফসহ আসামি ছিনিয়ে নিয়ে যান। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত সদস্যদের উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এতে গুরুতর আহত সুজাতপুর ফাঁড়ির উপপরির্দশক (এসআই) তোয়াহাকে রাজধানী ঢাকার রাজারবাগ পুলিশলাইন্স হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধিন রয়েছেন।

আহত অপর তিন পুলিশ সদস্য সুজাতপুর ফাঁড়ির এএসআই সোহেল রানা, কনস্টেবল হাতিমুরা ও সোহেলকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছিল।

এ ঘটনায় পরদিন পুলিশ বাদি হয়ে বানিয়াচং থানায় ১৫ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি মক্রমপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৮নং ওয়ার্ড সদস্য মুমিনুল হক ও তার ভাই মুজিবুর রহমানসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায়।

হ্যান্ডকাফসহ আসামি ছিনিয়ে নেয়ার ৯ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত ছিনিয়ে নেয়া সেই আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশ বলছে- আসামি দূরে কোথাও গাঢাকা দিয়ে রয়েছে। তবে খুব দ্রুত তাকে গ্রেফতার করা হবে।

বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরান হোসেন বলেন- ‘আসামি হবিগঞ্জের বাহিরে দূরে কোথাও গাঢাকা দিয়ে রয়েছে। যে কারণে তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে যতই দূরে থাকুক না কেন দ্রুতই তাকে গ্রেফতার করা হবে। এ ব্যাপারে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে নজর রেখেছে।’

তিনি বলেন- ‘গুরুত্বর আহত পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) তোয়াহা এখন অনেক চেয়ে অনেক ভালো আছেন। তবে তার গায়ে ২৫টি সেলাই দিতে হয়েছে যে কারণে তাকে সুস্থ হতে আরও অনেকদিন লাগতে পারে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। বর্তমানে সে রাজধানী ঢাকার রাজারবাগ পুলিশলাইন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় রয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category