আজ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ১১:২২

বার : বুধবার

ঋতু : হেমন্তকাল

আজমিরীগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান লাঞ্ছিতের ঘটনায় মামলা দায়ের

পলাশ পাল স্টাফ রিপোর্টারঃ আজমিরীগঞ্জে উপজেলা নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মর্তুজা হাসানের হাতে পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সীমা রাণী সরকার লাঞ্ছিত হয়েছেন। লাঞ্চিত করার ঘটনায় অবশেষে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা আক্তারের আদালতে এ মামলা দায়ের করলে বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ বুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ২২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে উপজেলা নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি নির্বাহী অফিসার মতিউর রহমান খাঁনের সভাপতিত্বে কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মর্তুজা হাসান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সীমা রাণী সরকার, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কুহেলিকা সরকার, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী, জলসুখা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খেলু মিয়া প্রমুখ।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সীমা রাণী সরকারের বক্তব্য প্রদানকালে বক্তব্যের একটি অংশ প্রত্যাহারের জন্য সীমা রাণী সরকারকে বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মর্তুজা হাসান। এরই জের ধরে বাক বিতন্ডার এক পর্যায়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মর্তুজা হাসান অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন সীমা রাণী সরকারকে। এক পর্যায়ে সীমা রাণী সরকারের গায়ে হাত তুলতে তেড়ে আসেন বলে সীমা রাণী সরকার জানায়। তখন সভায় উপস্থিত অন্যরা মর্তুজা হাসানকে বাধা প্রদান করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মতিউর রহমান খাঁনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির একটি সভায় বক্তব্যের একটি বিষয় নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের মধ্যে অনাকাঙ্খিত একটি ঘটনা ঘটে। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজের বিষয়টি আমি অবগত নই। তারপরও বিষয়টি আমি মীমাংসার চেষ্টা করেছি। এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মর্তুজা হাসান গালিগালাজ এবং তেড়ে আসার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বক্তব্যে তিনি এক পর্যায়ে বলেন পুরুষ শাসিত সমাজে নারীরা অবহেলিত। তখন এই কথাটির আমি প্রতিবাদ করি। এই হলো বিষয় অন্য কিছু নয়। আজমিরীগঞ্জে আমার বিরুদ্ধে সব সময় একটি মহল দূর্নাম রটায়। তুচ্ছ ঘটনাকে অন্য দিকে মোড় দিয়ে ওই মহল তাদের উদ্দেশ্য হাছিলের চেষ্টা করছে।

সাম্প্রতিককালে আজমিরীগঞ্জের ৫ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান উপজেলা চেয়ারম্যান মর্তুজা হাসান-এর নামে অনস্থা জ্ঞাপন করেন। যার ভিত্তিতে মন্ত্রণালয় থেকে মর্তুজা হাসানের নামে তদন্ত করার জন্য একটি নোটিশ প্রেরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category