আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ৬:৩০

বার : সোমবার

ঋতু : শীতকাল

বরিশালের বানারীপাড়ায় মেয়র প্রার্থী জিয়াউল হক মিন্টু’র সমর্থনে গন মিছিল

জাকির হোসেন, বরিশাল জেলা প্রতিনিধি।।

আজকের সকালটা সবার কাছে একটু ব্যতিক্রম। “মিন্টু ভাই মিন্টু ভাই ” শব্দে আজ যেন সবার ঘুম ভেঙ্গে গেছে। সবাই আজ ঘরের কোনে শুনতে পায় কারা যেন বলে যাচ্ছে মিন্টু ভাইয়ের নামধ্বনি। আর এ ঘটনাটি ঘটেছে বরিশালের বানারীপাড়া পৌরসভায় আজ সকালে। আসন্ন বানারীপাড়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীদের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল হক মিন্টু’র সমর্থনে আজ শুক্রবার পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের সব জায়গায় একই সময়ে মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। জিয়াউল হক মিন্টুকে পৌরমেয়র হিসেবে দেখতে আজ সাধারন জনগন রাস্তায় নেমে এসেছে। আকাশচুম্বি জনপ্রিয়তায় স্ব তাগিদে পৌরশহরের সকল রাস্তায় আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে জনতার কান্ডারী মিন্টুর পক্ষে আজ মিন্টু ভাই মিন্টু শ্লোগানে আকাশ বাতাশ প্রকম্পিত হয়। এ প্রসংগে জিয়াউল হক মিন্টু বলেন আমি জনগনের সেবক। আমি জনগনকে সাথে নিয়ে আমন্ন নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে চাই। যদি সাধারন জনগনের কাছে মনে হয় আমার গ্রহনযোগ্যতা আছে, আমি মেয়র হবার যোগ্য, আমি তাদের আস্থা বিশ্বাস অর্জন করতে পেরেছি তাহলে তারা আমাকে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করবে। শুধু আমি কেন জনগনের কাছে যে প্রার্থীকে যোগ্য মনে হবে তারা তাকেই ভোটের মাধ্যমে বিজয়ী করে পৌর পিতা হিসেবে অদিষ্ঠিত করবেন । তবে আমি আছি, আমি থাকবে, সর্বদা জনগনের পাশে, জনগনের সাথে। কিছুদিন পূর্বে জিয়াউল হক মিন্টুর সমর্থনে বানারীপাড়া পৌর শহরে স্মরণকালের সেরা নির্বাচনী শোডাউন হয়েছে। তাকে ঘিরে সাধারন জনগনের মাঝে উচ্ছাস পরিলক্ষিত হয়েছে। জিয়াউল হক মিন্টু বানারীপাড়ার পৌরশহরের সাধারন জনগনের নয়ন মনিতে পরিণত হয়েছেন। হাজার হাজার শ্রমিক ও সমর্থকদের অংশগ্রহনে তার মিছিল, উঠোন বৈঠক সবার নজর কেড়েছে জিয়াউল হক মিন্টুর নিজ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে পৌরসভার নির্বাচনে আসায় পৌরশহরের জনগন আশার আলো দেখতে পেয়েছে। তার পৌরসভা নির্বাচনে আসায় বীর মুক্তিযোদ্ধারা প্রান ফিরে পেয়েছেন। বানারীপাড়া উপজেলায় একমাত্র জিয়াউল হক মিন্টুই সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দিয়েছেন। পাশাপাশি প্রথম শ্রেনীর গেজেটেট কর্মকর্তাদের নাগরিক সংবর্ধনা ও দিয়েছেন। বিগত দিনে শ্রমিকদের মেয়েদের বিবাহ ও সন্তানদের লেখাপড়ার ব্যয় ভার বহন করেছেন। জিয়াউল হক মিন্টু সলিয়াবাকপুর ও বানারীপাড়া পৌরশহরের স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া ছেলেদের সুস্থ মানষিকতার বিকাশ ঘটাতে তাদেরকে খেলার মাঠে খেলাধুলায় মনোনিবেশ রাখতে খেলার উপকরন সামগ্রী বিতরন করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে বানারীপাড়া ফ্যালকন টিম ইতিমধ্যে আমতলী ক্রিকেট টুর্নামেন্টে ১ম ম্যাচের তিনটি খেলায় টানা তিনবার বিজয়ী হয়ে গ্রুুপ
চ্যাম্পিয়ান হয়ে বানারীপাড়া উপজেলার মুখ উজ্জল করেছে। আর এই ফ্যালকন টিমের চেয়ারম্যান এই জিয়াউল হক মিন্টু। মহামারী করোনাকালীন সময়ে গৃহবন্ধী ও অসহায় মানুষদের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিয়েছেন। মাদক, সন্ত্রাসমুক্ত করতে সর্বদা সতেষ্ট ছিলেন। আজকের প্রতিটা ওয়ার্ডের
মিছিলে দেখা গেছে করোনা মোকাবেলায় সরকারী নিয়মের বাস্তবায়ন ঘটিয়েছেন শতভাগ মাস্ক পরিধানের মাধ্যমে। এসময় নেতা-কর্মীরা সৎ ও পরিচ্ছন্ন ও রাজনীতিক যোগ্য সংগঠক জিয়াউল হক মিন্টুকে নৌকার কান্ডারী করার দাবীতে শ্লোগানে শ্লোগানে পৌর শহর মুখরিত করে তুলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category