শিরোনাম
হলি আর্টিজান হামলার ৬ বছর;হয়নি মামলার নিষ্পত্তি। বিশিষ্ট শিল্পপতি জনাব আবু উল রশীদ এর পক্ষথেকে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ করা হয় লোভ-হিংসা ও সংকির্ণ মনোভাবের ঊর্ধ্বে ওঠে মানবতার কল্যাণে কাজ করে যেতে হবে ——-সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী মাধবপুরে কৃষ্ণপুরের ব্রিজটি না হওয়াতে বিকল্প কাঠের সেতু তৈরী করে যানচলাচলে উপযোগী করছেন এলাকাবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসী আজাদ মিয়া ফরুকের পরিবারের পক্ষ থেকে ত্রান বিতরণ মৌলভীবাজার সমিতি সিলেট এর ত্রান ও নগদ অর্থ বিতরন বৃষ্টির মধ্যেও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন ইউ.কে প্রবাসী আলাউদ্দিনের পরিবার শাল্লা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ। ‘ভারত বাংলাদেশের কল্যাণ চায় না’-অধ্যক্ষ ইউনুস আহমেদ। সুবর্ণচরে ব্যবসায়ীর চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধার
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

বিশ্বম্ভরপুরে ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগী অনুষ্ঠিত 

Coder Boss / ৭২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৮ মার্চ, ২০২১

সোহেল আহমদ সাজু, জেলা প্রতিনিধি -সুনামগঞ্জ থেকেঃ

হারিয়ে যাওয়া গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী খেলাকে পুনরুদ্ধার করতে ও মাদকের থাবা থেকে যুব সমাজকে দুরে রাখতে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার দক্ষিণ বাদাঘাট ইউনিয়নের শক্তিয়ারখলা মাঠে অনুষ্ঠিত হলো ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা। গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহী খেলাকে ঘিরে গ্রামে তৈরি হয়েছে উৎসবের আমেজ। খেলা দেখতে পেরে খুশি দর্শকরা। 

বিশ্বম্ভরপুর  উপজেলার  গ্রামবাসীর আয়োজনে শক্তিয়ারখলা  মাঠে বৃহস্পতিবার  (১৮মার্চ )  ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। সুনামগঞ্জ,  দঃ সুনামগঞ্জ,  ছাতক, দোয়ারাবাজার, তাহিরপুর,  দিরাই, শাল্লা

সহ বিভিন্ন এলাকার প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। ৩টি গ্রুপে মোট ২৭টি ঘোড়া অংশগ্রহণ করে। খেলা শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

খেলা দেখতে আসা দর্শকরা জানান, ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী খেলা। আগে বিভিন্ন স্থানে খেলাগুলো দেখা যেতো কিন্তু এখন সচরাচর আর দেখা যায়না। দীর্ঘদিন পরে আবারও এমন খেলার আয়োজন করায় খুশি দর্শকরা। স্থানীয়রাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এই খেলা দেখতে আসেন দর্শনার্থীরা। এই খেলাকে ঘিরে এই অঞ্চলে পরিবারগুলোতে একটা উৎসবের আমেজ তৈরি হয় গ্রামের প্রতিটি বাড়িতে আত্নীয় স্বজনরা আসেন খেলা দেখতে। অনেকে আবার প্রথমবারের মতো খেলা দেখতে আসছে।  

বিভিন্ন স্থান থেকে খেলতে আসা খেলোয়াড়রা জানান, মানুষকে আনন্দ বিনোদন দেওয়ার উদ্দেশ্যেই এই ঘোড়া খেলা দেখিয়ে থাকেন। অত্র অঞ্চলের যেখানেই এই খেলা হয়ে থাকে আমরা সেখানে অংশগ্রহণ করে থাকি।

খেলার আয়োজক কমিটির সভাপতি জানান, গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী খেলাটি আজ হারিয়ে যেতে বসেছে। হারিয়ে যাওয়া খেলাকে পুনরুদ্ধার করতে ও মাদক থেকে যুব সমাজকে দুরে রাখতে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন। 

উপজেলার  দক্ষিণ বাদাঘাট  ইউনিয়নের সম্বাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী  জামাল হোসেন  জানান, গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী খেলাকে ধরে রাখতে সবধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। যুবকরা যেন মাদকের দিকে ধাবিত না হয় সেই জন্য তারা সব ধরনের খেলার আয়োজন করবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন