আজ ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ৩:৩৯

বার : শুক্রবার

ঋতু : গ্রীষ্মকাল

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক ড.তারেক শামসুর রেহমান আর নেই

বিশেষ সংবাদঃ-(১৭ই এপ্রিল রোজ শনিবার)
অধ্যাপক ডক্টর তারেক শামসুর রেহমান আর নেই,
ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন’
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রেহমান মারা গেছেন। ঢাকাস্থ উত্তরা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত তাঁর নিজ ফ্ল্যাটে গত ১৭ই এপ্রিল ২০২১ তারিখে তাঁকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। তাঁর পরিবারের সকলেই যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। তিনি তাঁর নিজ বাসায় একাই অবস্থান করছিলেন।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রেহমান ১৯৫৩ সালের ৯ই জুন পিরোজপুর জেলা সদরে তাঁর পিতার কর্মস্থলের সরকারী বাসভবনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তাঁর পিতার নাম আতাউর রহমান।

উল্লোখ্য তাঁর পৈত্রিক বাড়ী সিলেট বিভাগের হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার পিটুয়া গ্রামে। তিনি ১৯৬৮ সালে পিরোজপুর সরকারী হাই স্কুল থেকে এসএসসি ও ১৯৭০ সালে এইচএসসি পাস করেছিলেন। তিনি ১৯৭৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতক ও ১৯৭৫ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেছিলেন। তারপর তিনি যথাক্রমে ১৯৮৬ সালে ও ১৯৮৯ সালে জার্মানীর ফ্রাঙ্কফোর্ট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ের উপর গবেষণা করে এমএ এবং পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।
অতঃপর দেশে ফিরে এসে তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সরকার ও রাজনীতি বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যায়ক্রমে তিনি সহকারী অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক ও অধ্যাপক পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি এ বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ নামে নুতন একটি বিভাগ সৃষ্টি করে এতে চেয়ারম্যান নিযুক্ত হয়েছিলেন। তাছাড়া তিনি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের একজন সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। মৃত্যুর পূর্বেও তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে কাজ করছিলেন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রেহমান একজন স্বনামধন্য লেখক, গবেষক, কলামিষ্ট ও টিভি টকশোর নিয়োমিত আলোচক। তাঁর রচিত অনেক বই বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানো হচ্ছে। তাঁর বইসমূহ আন্তর্জাতিক রাজনীতি ও কূটনীতির চমৎকার বিশ্লেষণী পাঠ।
‘বিশ্ব রাজনীতির ১০০ বছর’ তাঁর সবচেয়ে জনপ্রিয় ও আলোচিত বই। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, বিভিন্ন দেশের পররাষ্ট্রনীতি, বিশ্ব রাজনীতিতে পরাশক্তিগুলোর স্বার্থ ও দ্বন্দ্ব, ভূ-রাজনীতির অতীত ও বর্তমান — এসব বিষয়ে তাঁর বিশ্লেষণাত্মক লেখার তুলনা নেই। বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক এই সদস্য বিগত দুই দশকে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, বিভিন্ন দেশের পররাষ্ট্রনীতি, কূটনীতি ও বৈদেশিক সম্পর্কের বিভিন্ন দিক নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ সব গবেষণা করেছেন। এসব গবেষণার ভিত্তিতে এ সকল বিষয়ে চমৎকার তথ্যবহুল কিছু বইও তিনি রচনা করেছেন। তাছাড়া তুলনামূলক রাজনীতি নিয়ে দীর্ঘদিন তিনি গবেষণা করেছেন এবং বইও লিখেছেন। তাঁর লেখালেখি কেবল বইয়ের ভেতরেই সীমাবদ্ধ ছিল না। বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা ও অন্যান্য কাজের পাশাপাশি তিনি নিয়মিত গুরুত্বপূর্ণ দেশীয় ও আন্তর্জাতিক প্রসঙ্গে জাতীয় দৈনিক গুলোতে কলাম লিখেছেন।
গবেষণার কাজে তিনি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছেন। এজন্য তাঁর অভিজ্ঞতার ঝুলি অনেক সমৃদ্ধ ছিল, আন্তর্জাতিক ভাবেও ছিল তাঁর সুখ্যাতি। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের আইভিপি ফেলো। অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রেহমানের বই সমগ্র একদিকে যেমন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের জন্য মৌলিক পাঠ, অন্যদিকে বিশ্ব রাজনীতি ও কূটকৌশল সম্পর্কে জানতে আগ্রহীদের জন্যও উপযোগী। তাঁর পাঠকপ্রিয় বইগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘আন্তর্জাতিক রাজনীতি কোষ’, ‘মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতি’, ‘বাংলাদেশের নিরাপত্তা ভাবনা’, ‘নয়া বিশ্বব্যবস্থা ও সমকালীন আন্তর্জাতিক রাজনীতি’, ‘বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি’, ‘দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার রাজনীতি’, ‘বাংলাদেশের পূর্বমুখী রাজনীতি’, ‘রাজনীতি ২০০৯’, ‘নির্বাচিত প্রবন্ধ সংকলন’, ইত্যাদি।

আমরা অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রেহমানের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করি। মহান আল্লাহপাক তাঁকে জান্নাত নসীব করুন। আ-মীন্।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category