আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : দুপুর ১২:২২

বার : রবিবার

ঋতু : বর্ষাকাল

বাসগৃহ উপহার জরিনা-কে চুনারুঘাট উপজেলায়

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ-পল্লীকবির “আসমানী” চুনারুঘাটের জরিনা বেগম কে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাসগৃহ উপহার: মানুষ মানুষের জন্য জীবন জীবন জন্য তবুও বলতে

অনেক বছর আগে “পল্লীকবি জসীমউদ্দীন তাঁর “আসমানী” কবিতায় লিখেছিলেন,

“বাড়ি তো নয় পাখির বাসা ভেন্না পাতার ছানি,
একটুখানি বৃষ্টি হলেই গড়িয়ে পড়ে পানি।
একটুখানি হাওয়া দিলেই ঘর নড়বড় করে,
তারি তলে আসমানীরা থাকে বছর ভরে।”আজ দেখে এমনই হল বাস্তব একজন মানুষের জনজীবনে গৃহ হীন জীবন তাই আজ আমরা প্রধানমন্ত্রী তহবিল থেকে বিশেষ উদ্যোগ কাজ করে যাচ্ছি আমরা।

পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর এর রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারকৃত একটি ভিডিও দেখে পল্লীকবি জসীমউদ্দীন এর “আসমানী” কবিতার কথা খুব মনে পড়ে যায়। চুনারুঘাট উপজেলার ৬ নং সদর ইউনিয়ন পরিষদ এর অন্তর্গত জিকুয়া গ্রামের জরিনা বেগমের জরাজীর্ণ ঘরের ভিডিওটি দেখে সাথে সাথেই এসিল্যান্ড মিলটন চন্দ্র পালকে ফরওয়ার্ড করি এ পরিবার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহের জন্য। এসিল্যান্ড সাথে সাথেই পোস্টদাতার সাথে যোগাযোগ করে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে উনাকে জানান। অতি অল্প সময়ে উপজেলা চেয়ারম্যান কে অবগত করে ,

মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী চুনারুঘাট উপজেলার সকল ‘ক’ তালিকাভুক্ত ভূমিহীন ও গৃহহীন ব্যক্তিদের জন্য গৃহ নির্মাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছে উপজেলা প্রশাসন, চুনারুঘাট। প্রথম পর্যায়ে ইকরতলীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করেন ৭৪টি বাসগৃহ। প্রথম পর্যায়ের অবশিষ্ট ৬ টি বাসগৃহ নির্মাণ করা হয় পানছড়ি আশ্রয়নে। বর্তমানে দ্বিতীয় পর্যায়ের ত্রিশটি ঘর নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে এখন রানীগাঁও ইউনিয়নে। অল্প কিছুদিনের মধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আরো ৩০টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের হাতে তুলে দিবেন দ্বিতীয় পর্যায়ের বাসগৃহ গুলো অসহায় মানুষের জন্য ।

এসিল্যান্ডের দেয়া তথ্য থেকে জানতে পারেন জরিনা বেগম গৃহহীন হলেও ৪ শতাংশ ভূমির মালিক। এখানেই নতুন বসতঘর নির্মাণ করা হলে তিনি ভীষণ ভাবে উপকৃত হবেন এটাও এলাকাবাসী থেকে ও সরজমিনে দেখা যায়,

মানবতার জননী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী চুনারুঘাট উপজেলার প্রতিটি গৃহহীন মানুষকে বাসগৃহ নির্মাণ করে দেয়ার প্রত্যয় বুকে নিয়ে মুজিববর্ষে শুরু থেকেই নিষ্ঠার সাথে কাজ করছেন উপজেলা প্রশাসনের সকলে ।

সে ধারাবাহিকতায় আজ বিকাল ৫.০০ ঘটিকায় চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, চুনারুঘাট জনাব আব্দুল কাদির লস্কর এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, চুনারুঘাট সহ এসিল্যান্ড মিল্টন চন্দ্র পালকে সাথে নিয়ে সরেজমিনে এযুগের “আসমানী” জরিনা বেগমের বাসগৃহ পরিদর্শন করি। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, চুনারুঘাট জনাব আব্দুল কাদির লস্কর মহোদয়ের পরামর্শে আগামী দুইদিনের মধ্যে জরিনা বেগমের জরাজীর্ণ ছাউনির স্থলে উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে নতুন পাকা বাসগৃহ নির্মাণের কাজ শুরুর উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে ।
উল্লেখ্য যে লাইভ ভিডিওর মাধ্যমে বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনের নজরে আনেন চুনারুঘাট উপজেলার কৃতি সন্তান জনাব ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন এবং শায়েস্তাগঞ্জের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের জনাব রফিকুল ইসলাম রফিক,জনাব বাবুল হোসেন। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের মেসেঞ্জারে প্রেরণ করেন চুনারুঘাটের সাংবাদিক । উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আপনাদের আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছেন প্রশাসন এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের লোক যদি গৃহনীন থাকে তা হলে প্রশাসন কে অবগত করলে অসহায় মানুষের জীবনে অনেক উপকৃত হবে, প্রশাসন বলেন গৃহনির্মাণ অবহৃত রয়েছে মর্মে উল্লেখ্য করেন ।

উপজেলা প্রশাসন চুনারুঘাট এমনই অসহায় ও দরিদ্র মানুষকে মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌঁছে দিতে খুঁজে চলেছে নিরন্তর। আর্তমানবতার সেবায় সকলকে এমন গৃহহীন ও দুস্থ মানুষের তথ্য দিয়ে উপজেলা প্রশাসনকে সহযোগিতা করার জন্য বিনীত ভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। সেসাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যয় অনুসরণ করে বাংলাদেশের প্রতিটি অঞ্চল এর মত চুনারুঘাট উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত করতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল সামর্থ্যবান ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানাচ্ছি।

আসুন, সকলে মিলিতভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে সহায়ক ভূমিকা রাখি। ধন্যবাদ সকলকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category