আজ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ৩:০৮

বার : বুধবার

ঋতু : হেমন্তকাল

বানারীপাড়া সদর ইউনিয়নে জনচলাচলে চরম ভোগান্তি। এ যেন রাস্তা নয় আবাধযোগ্য জমি।।

জাকির হোসেন, বরিশাল।।

বরিশালের বানারীপাড়ার সদর ইউনিয়নে একটি মাটির রাস্তা আজ জনচরাচলে চরম ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। সদর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের গাভা গ্রামে এই মাটির রাস্তা যেন ধান চাষের উপযোগী জমিতে রূপ নিয়েছে। রাস্তাটি সদর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার সালাম হাওলাদারের বাড়ির পাশ দিয়ে ৭ নম্বর ওয়ার্ড হয়ে সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের নরোত্তমপুর গ্রাম হয়ে বানারীপাড়া পৌর শহরের রায়েরহাট ব্রিজ থেকে বরিশাল-বানারীপাড়া ভায়া স্বরূপকাঠি আঞ্চলিক সড়কের সাথে এক হয়েছে। রাস্তার অপর প্রান্ত থেকে বরিশাল ও ঝালকাঠি শহরে যেতে ব্যবহার করা হয়। চলতি বর্ষা মৌসুমে কর্দমাক্ত রাস্তাটি দিয়ে এলাকাবাসীকে চলাচল করতে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধজন, প্রসূতি নারী, অসুস্থ রোগী ও মসজিদের মুসল্লীদের দূভোর্গের যেন শেষ নেই। যানবাহন চলাচলের তো কোন সুযোগই নেই। এ রাস্তা দিয়ে পায়ে হেটেই চলাচল করতে হয়। ফলে পা পিছলে পড়ে প্রায়ই ঘটছে দূর্ঘটনা। গাভা মাধ্যমিক ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,পশ্চিম গাভা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,বানারীপাড়া ডিগ্রী কলেজ, চাখার সরকারি ফজলুল হক কলেজ, ঝালকাঠির শাহ্ মাহমুদিয়া কলেজ ও উজিরপুরের গুঠিয়া আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে ওই রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে অন্তহীন দূর্ভোগ পোহাতে হয়। করোনা ভাইরাসের কারনে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকলেও শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমেনি। প্রাইভেট পড়তে যাওয়াসহ এলাকায় চলাফেরা করতে ওই রাস্তাটিই তাদের ব্যবহার করতে হয়।ছাড়া ওই রাস্তা দিয়ে রায়েরহাট বাজার, বানারীপাড়া বন্দর বাজার ও গাভা বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য ও পণ্য সামগ্রী কেনাকাটা করতে যেতে হয় এলাকাবাসীকে। এছাড়া বরিশাল শহর,বানারীপাড়া পৌর শহর ও ঝালকাঠি শহরসহ বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের জন্য তাদের ওই রাস্তাটি ব্যবহার করতে হয়।

অভিযোগ রয়েছে ওই গ্রামের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের হ্যাটট্রিক বিজয়ী ইউপি সদস্য আ. সালাম হাওলাদার সরকারি টাকায় নিজ বাড়ির সামনে পুল নির্মাণ করলেও রাস্তাটি হেরিংবন কিংবা পাকা করণে তার কোন উদ্যোগ নেই।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আ. জলিল ঘরামী এলাকাবাসীর দূর্ভোগের কথা স্বীকার করে জানান, দূর্ভোগ দূর করতে মাটির রাস্তাটি পাকাকরণের চেষ্টা চলছে। এদিকে ভূক্তভোগী এলাকাবাসী স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. শাহে আলমের কাছে জনগুরুত্বপূর্ণ মাটির এ রাস্তাটি পাকা করে তাদের দীর্ঘ বছরের দূর্ভোগ লাঘবের দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category