আজ ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ৪:৪৩

বার : বৃহস্পতিবার

ঋতু : হেমন্তকাল

টাংগাইলে ০৬ টি ইউনিয়ন বন্যার পানিতে নিমজ্জিত

টাংগাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

 

টাংগাইল জেলার ভূঞাপুর উপজেলায় এবছর বন্যায় ব্যাপক ক্ষতি ও প্রায় ১০০ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। যমুনার চরাঞ্চল ও নিম্নাঞ্চল বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। এখানকার বন্যা পরিস্থিতি ক্রমশই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে, অধিকাংশ এলাকা এখনও বন্যার পানিতে তলিয়ে আছে। শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দেওয়ায় খেটে খাওয়া মানুষের জীবনে হতাশার জন্ম নিচ্ছে এমনকি দূর্ভোগের স্বীকার হচ্ছে। মহামারী করোনা ভাইরাসের ধকল না কাটতেই বন্যায় পানি বন্ধি হয়ে আয় – রোজগার একবারে বন্ধ, অনেকের ঘরে চুলা জ্বলছে না। বন্যা কবলিত এলাকার গ্রামীণ রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় গ্রামের মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের প্রায় ১০০ একর পানিতে নিমজ্জিত হয়ে গেছে বীজতলা, রোপা আমন ধান, সবজি ক্ষেত, ভেসে গেছে পুকুরের মাছ। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কালভার্ট, ভেঙ্গেছে রাস্তা-ঘাট। বানভাসি মানুষগুলো গবাদিপশু নিয়ে পড়েছেন মহাবিপাকে। বানভাসিদের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে পারাপারের জন্য নৌকা কিংবা কলাগাছের ভেলাই একমাত্র ভরসা। দীর্ঘদিন বন্যার কারণে পানিবন্দি মানুষের মাঝে চর্মরোগ সহ পানিবাহিত নানা রোগ বালাই বাসা বেঁধেছে। অনেকে এখনো বসতভিটা ছেড়ে পরিবার – পরিজন ও গবাদি পশু নিয়ে রাস্তার পাশে উঁচু স্থানে রয়েছে। উপজেলার যমুনা চরাঞ্চল ও তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের পানি কমলেও নিচু এলাকায় এখনো পানিবন্দি রয়েছে প্রায় ১০০ পরিবার। পানি কমে বিপদ সীমার এখন প্রায় ১২ সিঃ মিঃ নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে উপজেলার যমুনা চরাঞ্চল সহ নদীর পূর্ব পাড়, নিম্নাঞ্চলের পানি কমতে শুরু করেছে। পানি কমতে শুরু করলেও ভোগান্তিতে রয়েছে এসব এলাকায় মানুষ। যমুনার পানি অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যাওয়ায় উপজেলার চরাঞ্চলসহ নিম্নাঞ্চলের প্রায় ১০০ হেক্টর জমির ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। দীর্ঘদিন এসব জমির ফসল পানির নিচে তলিয়ে থাকায় আমন ধানসহ অন্যান্য ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। এর ফলে উপজেলার চরাঞ্চলসহ নিম্নাঞ্চলের কৃষকদের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাদের এই ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে বন্যা পরবর্তী সময়ে প্রনোদনার পাশাপাশি উপজেলা কৃষি অফিস কৃষকদেরকে সকল প্রকার সহযোগিতা করবে বলে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আল মামুন রাসেল সাংবাদিককে এ কথা জানান।

মোঃ মশিউর রহমান
জেলা প্রতিনিধি, টাংগাইল
০১৭৮৬৬৯৮২৬০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category