শিরোনাম
কারখানা থেকে ছুটি না মিললেও দুনিয়া থেকে ছুটি পেল গার্মেন্টস শ্রমিক হাসিব কিশোরগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়েছেন স্বরেয়া হোসেন বর্ষা মানুষ মানুষের জন্য, সকলে বন্যার্ত অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানো উচিত…এটিএম হামিদ প্রাকৃতিক দূর্যোগে দিশেহারা সিলেট, থৈথৈ করে বাড়ছে পানি কানাইঘাটে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলের দ্বায়িত্বশীলরা পানি বিশুদ্ধ করন ট্যাবলেট নিয়ে উপজেলার বন্যাগ্রস্ত মানুষের পাশে বানিয়াচংয়ে বাংলা টিভি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন সরকার বন্যার্তদের পাশে আছে ত্রাণের অভাব হবেনা— এমপি মানিক সিলেটে বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরন করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন ঘাটাইল উপজেলায় আশ্রয়ন প্রকল্পের অধীনে বরাদ্দকৃত ঘরে ফাটল ছাতকে বন্যার অবনতি,নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত উপজেলা সদরের সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন
শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৯:৪৪ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

শাহপরানের বাইপাস জায়গা কিনে নানামুখী হয়রানির স্বীকার প্রবাসী : বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ

Coder Boss / ৮২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

নিজস্ব ডেস্ক:

সিলেট শহরতলীর শাহপরান (রহ.) থানাধীন বাইপাস হাজীরাই মৌজায় বায়নামাপত্রের মাধ্যমে জায়গা কিনে নানামুখী হয়রানির স্বীকার শাহপরান (রহ.) থানাধীন মুরাদপুর এলাকার নুনু মিয়ার পুত্র প্রবাসী ছালেহ আহমদ (৪৪)। তাছাড়া তিনি স্থানীয় থানাসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও পাচ্ছেন না কোন সূরাহা।

জানা গেছে- প্রবাসী ছালেহ আহমদ নিম্ন তপশীল বর্ণিত (৩৩ শতক) ভূমি শাহপরান (রহ.) থানাধীন মুরাদপুর, হাজিরাই এলাকার মোঃ আজমল আলীর নেফুর স্ত্রী মোছাঃ হারুন বেগম খরিদ সুত্রে মালিক ও দখলকার থাকিয়া বায়নামা স্বরুপ (৩৩ লক্ষ) টাকা ধার্য্য ক্রমে চলতি বছরের গত রবিবার (০৯ জানুয়ারি) ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা সমজিয়া নিয়া চুক্তি ও প্রতিজ্ঞা করেন উক্ত তারিখ হইতে আগামী বৃহস্পতিবার (১০ই ফেব্রুয়ারি) মেয়াদের মধ্যে বাকী ৩০ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা সমজিয়া পাইয়া তিনি প্রবাসী ছালেহ আহমদকে বৈধ সাফ কাবালা লিখাইয়া রেজিস্ট্রারী অফিসে উপস্থিত থাকিয়া দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রারী করিয়া দিবেন।

বায়ানামা সুত্রে মালিক হয়ে প্রবাসী ছালেহ আহমদ গত রবিবার (৭ই ফেব্রুয়ারি) উক্ত জায়গায়তে বায়নামা সুত্রে তার নামে মালিকানা সাইনবোর্ড ও খুঁটি বসান। কিন্তু একটি প্রভাবশালী চক্র গত রবিবার (৭ই ফেব্রুয়ারি) তার কেয়ার টেকার আনোয়ার মিয়াকে হুমকি দিয়ে উক্ত সাইনবোর্ড ও খুঁটি উঠাইয়া ফেলে এবং এই চক্র হুমকি দেয় যে, তাদের ৪ লক্ষ টাকা না দিলে এই জায়গায়তে কোনভাবে প্রবাসী ছালেহ আহমদ অবস্থান করতে পারবেন না। পরবর্তীতে প্রবাসী ছালেহ আহমদ সোমবার (৮ই ফেব্রুয়ারি) এই চক্রের ৮ জনের বিরুদ্ধে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) বরাবরে একখানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এছাড়াও এই ঘটনায় প্রবাসী ছালেহ আহমদ এই চক্রের এই ৮ জনের বিরুদ্ধে পূনরায় গত শনিবার (১৯ই ফেব্রুয়ারি) সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার বরাবরে আরোও একখানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তবে জানা গেছে- অভিযোগ দুটি বর্তমানে তদন্তধীন রয়েছে।

একরকম অবস্থায় চলতে থাকা অবস্থায় দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রারী করিয়া নেওয়ার সময় আসিলে তিনি মোছাঃ হারুন বেগমে দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রারী করিয়া তার বাকী টাকা সমজিয়া নেয়ার জন্য জানাইলে তিনি কয়েক দিনের সময় নেন। এভাবে কয়েক দিন অতিবাহিত হতে থাকলে প্রবাসী ছালেহ আহমদ গত বৃহস্পতিবার (১৭ই ফেব্রুয়ারি) মোছাঃ হারুন বেগমে জায়গার দখল সমজাইয়া এবং দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রারী করিয়া দেওয়ার জন্য আদালতের মাধ্যমে উকিল নোটিশ করেন। মোছাঃ হারুন বেগম আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রবাসী ছালেহ আহমদকে জায়গার দখল সমজাইয়া এবং দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রারী করিয়া দেয়ার জন্য উকিল নোটিশে জানানো হয়।

আরো জানা গেছে- প্রবাসী ছালেহ আহমদ বুধবার (২৩ই ফেব্রুয়ারি) শাহপরান (রহ.) থানায় ৪ জনকে অভিযুক্ত করে পূনরায় আরোও একখানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে- প্রবাসী ছালেহ আহমদ পূনরায় বুধবার (২৩ই ফেব্রুয়ারি) তার বায়নামা সুত্রে খরিদকৃত জায়গাতে নিজের নামে একখানা সাইনবোর্ড ও জায়গার সীমানা নির্ধারণের জন্য খুঁটি বসান। কিন্তু ওই দিন দুপুর অনুমান ১২:৩০ ঘটিকায় মুরাদপুর এলাকার মৃত ইরফান উল্লার পুত্র কাদির মিয়াসহ তার দুই পুত্র শাহিন মিয়া ও সাঈদ আলী এবং শাহজালাল উপশর রোড নং- ৯, ব্লক এ, বাসা নং- ১২ এর মৃত ছুনু মিয়ার পুত্র সাইস্তা মিয়া পূনরায় তার নিম্ন তপশীল বর্নিত ভূমিতে স্থাপিত সাইনবোর্ড উপরাইয়া ফেলে দেয় এসময় প্রবাসী ছালেহ আহমদের কেয়ার টেকার আনোয়ার মিয়া তাদের বাধা প্রদান করলে বিবাদীরা তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ভয়তীতি ও প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে বলে যে উক্ত জায়গাতে প্রবাসী ছালেহ আহমদের সাইনবোর্ড লাগাতে হলে বিবাদীদের ৪ লক্ষ টাকা চাঁদা দিতে হবে। কেয়ার টেকার আনোয়ার মিয়া এ ব্যাপারে প্রবাসী ছালেহ আহমদকে অবগত করলে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এ কল দিলে শাহপরান (রহ.) থানা পুলিশ সরজমিন ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি প্রত্যহ করেন।

এ ব্যাপারে শাহপরান (রহ.) থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আনিসুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য সংগ্রহ করা সম্ভব হয় নি।

সর্বশেষ প্রবাসী ছালেহ আহমদ এই চাঁদাবাজ চক্রের হাত থেকে তাকে রক্ষা করে এই সন্ত্রাসী চক্রের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তার নিকট আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

তপশীল: জেলা- সিলেট, উপজেলা- সিলেট সদর, থানা- শাহপরান (রহ.), মৌজা- হাজীরাই, জেএল নং এস.এ- ১০৩, খতিয়ান- ১৮৯, নামজারী খতিয়ান নং- ১৫০৮, বিএস ডিপি খতিয়ান নং- ১৯৮, এসএ দাগ নং- ১২৬, বিএস দাগ নং- ৪৮০, জমির পরিমান- ৩৩ শতক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন