শিরোনাম
একাই করেন তিনটি সরকারি চাকুরী দ্রব্যমূল্য উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে জগন্নাথপুরে জাতীয় পার্টির প্রতিবাদসভা বড়লেখার হাকালুকি হাওর পারে গৃহনির্মাণ সামগ্রী বিতরণ জামিনে বের হয়ে ফের দুই প্রতারক সহ গ্রেফতার মজিবুর রহমান। গুমান মর্দন প্রবাসী পরিষদ সংযুক্ত আরব আমিরাত গভীরভাবে শোকাহত বৃহত্তর গোলাপগঞ্জ উপজেলার মানব সেবায় নিয়োজিত হবিগঞ্জের মাধবপুরে ১০ কেজি গাজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বানিয়াচংয়ে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত বিশ্বনাথে নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন কমিটি মতবিনিময় সভা আহবায়ক কমিটি গঠন দয়ামীর ইউনিয়ন এডুকেশন ফোরাম ইউ.কে এর উদ্দ্যোগে ফ্রি ব্লাড ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত
বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৯:২৩ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে আজ সিলেটে হরতাল

Coder Boss / ৫৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৮ মার্চ, ২০২২

মোঃ হাবিবুর রহমান, প্রতিনিধিঃ

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে আজ সোমবার (২৮ মার্চ) সারাদেশে আধাবেলা হরতাল আহ্বান করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। এর মাধ্যমে দেশে দীর্ঘদিন পর আবার ফিরে এলো হরতাল।

আগে রাজনৈতাক দলগুলো বিভিন্ন দাবিতে ঘনঘন হরতাল আহ্বান করলেও সাম্প্রতিক সময়ে এই প্রবণতা অনেকটাই কমে এসেছে। এখন রাজনৈতিক দলগুলোতে হরতালের মতো কর্মসূচি দিতে দেখা যায় না। তবে দীর্ঘদিন পর আজ হরতাল পালন করবে বাম গণতান্ত্রিক জোট।

সাম্প্রতিক সময়ে দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য লাগামহীন ভাবে বেড়ে চলছে। এতে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। বিশেষত নিম্ন আয়ের মানুষদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমুল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে আসছে বিরোধী দল বিএনপি। বাম গণতান্ত্রিক জোটও বিভিন্ন প্রতিবাদী কর্মসূচী পালন করেছে। তবে এতেও দ্রব্যমূল্য না কমায় এবার হরতাল আহ্বান করেছে বামপন্থী দলগুলোর এই মোর্চা।

বামদের এই হরতালে সমর্থন জানিয়েছে বিএনপি। রোববার (২৭ মার্চ) বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে সোমবার দেশব্যাপী বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকা হরতালে নৈতিক সমর্থন জানিয়েছে বিএনপি। বিএনপি সবসময়ই জনগণের রাজনীতি করে, তাই জনকল্যাণে যে কোনো দাবির প্রতি সমর্থন জানানোর অংশ হিসেবে এ নৈতিক সমর্থন বলে জানান রিজভী।

তবে হরতালের কারণে বাস-মিনিবাস বন্ধ হবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি্

শনিবার (২৬ মার্চ) ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির দপ্তর সম্পাদক সামদানী খন্দকার স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাম গণতান্ত্রিক ঐক্যজোটের ডাকা হরতালের ব্যাপারে আলোচনা করার জন্য ঢাকার পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের এক যৌথ সভা ডাকা হয়। সভায় অযৌক্তিক ও খোঁড়া অজুহাতে ডাকা এ হরতাল মালিক-শ্রমিকরা সমর্থন করেননি। বরং ওই দিন ঢাকা শহর, শহরতলী এবং আন্তঃজেলার সব রুটে বাস-মিনিবাস চলাচল অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এ সময় হরতালের দিন গাড়ি চলাচল যাতে বাধাগ্রস্ত না হয় সেজন্য শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়।

এদিকে, বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকা অর্ধদিবস হরতালের সমর্থনে সিলেটে মশাল মিছিল করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট সিলেট জেলা।

রোববার (২৭ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় নগরের রেজিস্ট্রারি মাঠ থেকে এ মশাল মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি নগরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে আম্বরখানা পয়েন্টে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।

বাম গণতান্ত্রিক জোট সিলেট জেলার সমন্বয়ক ও বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক খায়রুল হাছানের সভাপতিত্বে ও বাসদ জেলা সদস্য প্রণব জ্যোতি পালের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন- সিপিবি সিলেট বিভাগের সমন্বয়ক আনোয়ার হোসেন সুমন, বাসদ (মার্কসবাদী) জেলা আহ্বায়ক উজ্জল রায়, বাসদ জেলা সমন্বয়ক আবু জাফর, সিপিবি সিলেট জেলার সভাপতি সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সভাপতি সিরাজ আহমদ, বাসদ (মার্কসবাদী) নেতা হুমায়ুন রশিদ সুয়েব, যুব ইউনিয়ন সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন দাস খোকন, ছাত্র ফ্রন্ট নগর সভাপতি সঞ্জয় কান্ত দাস, ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক নাহিদ হাসান প্রান্তিক, ছাত্র ইউনিয়নের আহ্বায়ক মনীষা ওয়াহিদ প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, ‘জান বাঁচাতে এ হরতাল কোনো দলের নয়, সব মানুষের। তাই নিজে হরতাল পালন করুন। অন্যকে উৎসাহিত করুন। হরতাল সফল করতে ভূমিকা নিন। সোমবার ভোর থেকেই সিলেটের রাজপথে বাম জোটের নেতাকর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে হরতাল পালন করবে।’

বক্তারা বলেন, ‘চাল-ডাল-পিঁয়াজ-সিলিন্ডার গ্যাসসহ অতি জরুরি খাদ্যদ্রব্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির যৌক্তিক কোনো কারণ নেই। আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্যতেলের যা দাম বেড়েছে; দেশে তার তুলনায় অনেক বেশি দাম বাড়ানো হয়েছে। আর গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির দাম বাড়ানো হচ্ছে পুরোপুরি খামখেয়ালিভাবে। এ সব খাতের চুরি, দুর্নীতি, লুটপাট আর অব্যবস্থাপনার দায় চাপানো হচ্ছে ভোক্তাদের ওপর। আসলে সরকার ও অসৎ ব্যবসায়ীরা এক মহাসিণ্ডিকেট গড়ে তুলেছে। কথিত উন্নয়নের কথা বলে নিজেদের চুরি, দুর্নীতি ও লুটপাটকে আড়াল করার চেষ্টা করছে। এভাবে সঙ্কীর্ণ স্বার্থে দেশ ও জনগণকে তারা অনিশ্চিত অন্ধকারে ঠেলে দিয়েছে। এ অবস্থায় আন্দোলন গড়ে তোলা ছাড়া এ থেকে মুক্তি নেই।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  

বিভাগের খবর দেখুন