আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সময় : বিকাল ৫:১০

বার : মঙ্গলবার

ঋতু : শরৎকাল

কি কারনে ভাংল অপুর্বের সংসার।

নিজস্ব প্রিতিবেদনঃঅভিনেত্রী প্রভার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর ২০১১ সালে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় নায়ক জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। শোবিজের সুখী দম্পতি হিসেবে এতদিন উচ্চারিত হতো তাদের নাম। অপূর্ব সুযোগ হলেই স্ত্রীকে নিয়ে হাজির হতেন নানা অনুষ্ঠানে।
সেই সুখের দাম্পত্য তছনছ হয়ে গেল সন্দেহের কালবৈশাখী ঝড়ে। বিচ্ছেদ হয়েছে অপূর্ব ও অদিতির।
আদর্শ দম্পতি হিসেবে পরিচিত এই জুটির হঠাৎ বিচ্ছেদের খবরে বিস্মিত শোবিজের মানুষ। কেন ভাঙলো তাদের সংসার? এই প্রশ্ন উঠে আসছে সহসাই। এদিকে বিচ্ছেদের ব্যাপারে মুখে কুলুপ এঁটে আছেন অপূর্ব ও অদিতি। তারা কেউই এ নিয়ে মুখ খুলছেন না।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তাদের সম্পর্ক ভাঙনের শুরু গত বছরের শেষ দিকেই। দু-একজন অভিনেত্রীর সঙ্গে অপূর্বর ঘনিষ্ঠতা মেনে নিতে পারেননি অদিতি। এছাড়া এ নায়ক নাকি পরকীয়ায় জড়িয়েছেন বলে সন্দেহ করেন তার স্ত্রী। এ নিয়ে মনোমালিন্য চলতে থাকে দুজনের।
অপূর্ব অনেক চেষ্টা করেন স্ত্রীকে বোঝাতে। তিনি ওইসব অভিনেত্রীদের দিয়েও অদিতির সঙ্গে নাকি কথা বলিয়েছিলেন। তাতে লাভ হয়নি।
শুধু তাই নয়, অপূর্ব তার স্ত্রীর গল্প দিয়ে বেশকিছু নাটক তৈরি করে তাতে অভিনয় করে স্ত্রীকেও শোবিজে পরিচিত করে তোলার চেষ্টা করেন। স্ত্রীর মনের সন্দেহ দূর করার চেষ্টা করেন।
এরপরও কিছু ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুজনের মধ্যে দূরত্ব বাড়তে থাকে। সেই দূরত্বের জেরে ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নেন অদিতি। শেষপর্যন্ত সেই সিদ্ধান্তই বাস্তবায়ন হলো। অদিতি এক স্ট্যাটাসে অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্সের আভাস দিয়েছেন।
এ বিচ্ছেদের ফলে তাদের ৯ বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি ঘটলো। অপূর্ব-অদিতির ঘরে জায়ান ফারুক আয়াশ নামে এক পুত্র রয়েছে। বাবা-মায়ের বিচ্ছেদে ছেলে কার সঙ্গে থাকবে সে ব্যাপারে জানা যাবে তারা মুখ খোলার পর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category