আজ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : দুপুর ১:৩১

বার : রবিবার

ঋতু : হেমন্তকাল

বানিয়াচংয়ে পানি নিষ্কাশনের নালা বন্ধ করে দোকান নির্মাণ। এলাকাবাসীর ক্ষোভ প্রকাশ।।

‌দি‌লোয়ার হোসাইন,বানিয়াচং প্রতিনিধিঃ বানিয়াচংয়ের দক্ষিন নন্দীপাড়ার প্রভাবশালী একটি পরিবার এলাকাবাসীর পানি নিষ্কাশনের নালা বন্ধ করে দিয়ে দোকান ঘর নির্মাণ করছে। এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এ নিয়ে যে কোন সময় ঘটতে পারে সংঘর্ষ।
পানি নিষ্কাশনের নালাটি বন্ধ করা হলে দুটি মহল্লার কয়েক হাজার মানুষ জলাবদ্ধতার কারনে দূর্ভোগে পড়বে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বানিয়াচং উপজেলার ১ নং ইউনিয়নের দক্ষিন নন্দীপাড়া গ্রামের বিএনপি নেতা আনসার মিয়া ও তার ভাইয়েরা মিলে মাটি ভরাট করে পানি নিষ্কাশনের নালা বন্ধ করে দিচ্ছেন।
বানিয়াচং আলীয়া মাদ্রাসার সামনের কালভার্ট দিয়ে পুরানবাগ গ্রাম,আলীয়া মাদ্রাসা,পুরানবাগ কবরস্থান ও দক্ষিন নন্দীপাড়া গ্রামের পানি ওই নালা দিয়ে গড়ের খালে নামে।
অভিযুক্ত আনসার মিয়া ও তার ভাইয়েরা তাদের পুকুরের পাড় পেরিয়ে নালার প্রায় ৭থেকে ৮ফুট ও রাস্তার ৫ থেকে ৬ ফুট জমি ভরাট করে ফেলছেন। মাটি দিয়ে নালাটি বর্তমানে ভরাট করার কারনে পানি নিষ্কাশনের আর কোন ব্যাবস্থা না থাকায় বেশ কয়েকটি এলাকায় স্থায়ী জলাবদ্ধতার আশংকা দেখা দিয়েছে।
আগামী বর্ষাকালে ওই সমস্ত এলাকার পানি নামতে না পেরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হবে। এতে করে দূর্ভোগ পোহাবে কয়েক হাজার মানুষ।
এ ব্যাপারে দক্ষিন নন্দী পাড়া‘র মোঃ নবী হোসেন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন,তারা এলাকায় প্রভাবশালী লোক হওয়ায় ভয়ে কেউ কিছু বলছেনা।
এটি নালা নয় এক সময় বড় ধরনের একটি খাল ছিল। সরকার রাস্তা করার কারনে এটি বর্তমানে নালায় পরিনত হয়েছে। এখন যদি তারা নালাও বন্ধ করে দেন তাহলে লোকজনের বাসা-বাড়ীর পানি কোথায় যাবে বলে তিনি প্রশ্ন রাখেন সংবাদকর্মীদের কাছে।
একই এলাকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাক্তি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করে জানান, ভূমি অফিসের লোকজন সরেজমিনে মাপজোখ করলেই শত বছরের পুরাতন খালটির আসল সীমানা বেরিয়ে আসবে।
এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ রানা বলেন, বিষয়টি আমি খতিয়ে দেখবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category