আজ ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ১:৪৫

বার : সোমবার

ঋতু : শরৎকাল

ধর্মপাশার মধ্যনগরে হ্যান্ডট্রলির ধাক্কায় এক শিশুর মৃত্যু

 

এম এইচ লিপু মজুমদার ধর্মপাশা প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার মধ্যনগর থানাধীন বংশীকুণ্ডা উত্তর ইউনিয়নের মহেশখলা বাজারের পশ্চিমপাশের সড়কে পাথরবোঝাই একটি ইঞ্জিনচালিত হ্যান্ড ট্রলির ধাক্কায় সড়কের নিচে পড়ে গিয়ে তানজীদ মিয়া নামের ছয় বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার (২৬ফেব্রুয়ারি) সকাল নয়টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। নিহত ওই শিশুটির বাড়ি উপজেলার সাউদপাড়া গ্রামে। সে ওই গ্রামের মুদি দোকানের ব্যবসায়ী ওয়াসিম মিয়ার ছেলে। ঘটনার পর পরই ঘটনাস্থল থেকে হ্যাণ্ডট্রলি চালক সাইকুল ইসলাম (২১)কে আটক করে স্থানীয় লোকজন। তাঁর বাড়ি পাশের তাহিরপুর উপজেলার তেরঘর রতনপুর গ্রামে।
এলাকাবাসী,মধ্যনগর থানা পুলিশ ও ওই শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বংশীকুণ্ডা উত্তর ইউনিয়নের কালাগড় এলাকায় একটি সেতু নির্মাণের কাজ চলছে। আজ শুক্রবার সকাল ছয়টার দিকে পাশের তাহিরপুর উপজেলার বাগলী এলাকা থেকে পাথরবোঝাই একটি ইঞ্জিনচালিত হ্যাণ্ডট্রলি
নিয়ে ধর্মপাশা উপজেলার বংশীকুণ্ডা উত্তর ইউনিয়নের কালাগড় এলাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। সকাল নয়টার দিকে হ্যাণ্ডট্রলিটি উপজেলার মহেশখলা বাজারের পশ্চিমপাশের সড়কে আসে। এ সময় শিশু তানজিদ মিয়া ওই সড়কের ওপর দিয়ে প্রতিবেশী এক শিশুর (১২) সঙ্গে নিজ বাড়ি ফিরছিল।এ সময় ট্রলিটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তানজীদকে পেছন থেকে ধাক্কা মারে। এতে তানজিদ সড়কের নিচে ছিটকে পড়ে এবং মাথার খুলি ফেটে গিয়ে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। আশপাশে থাকা স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে সঙ্গে সঙ্গে হ্যাণ্ডট্রলির চালক সাইকুল ইসলাম (২১)কে আটক করে মহেশখলা বাজারে নিয়ে আসে। এ সময় শিশু তানজীদকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যান তার স্বজনেরা। খবর পেয়ে মধ্যনগর থানা পুলিশ ওইদিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মহিষখলা বাজারে গিয়ে আটক হওয়া সাইকুলকে গ্রেপ্তার করে মধ্যনগর থানায় নিয়ে আসে।

মধ্যনগর থানার ওসি নির্মল দেব বলেন ঘটনায় নিহত শিশুটির পরিবারের সদস্যদের কারও কোনো অভিযোগ না থাকায় শিশুটির লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই শিশুটির পরিবারের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ঘটনা নিয়ে শিশুটির পরিবার মামলা না করায় ইঞ্জিনচালিত হ্যান্ডট্রলি চালক সাইকুলকে বংশীকুণ্ডা উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসাইনের জিম্মায় দিয়ে চালককে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

বংশীকুণ্ডা উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি)চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসাইন বলেন, ঘটনাটি নিয়ে শিশুটির পরিবার মামলা করতে আগ্রহী নয়।তাই এটি স্থানীয়ভাবে দুইপক্ষের লোকজন বসে আলোচনার মাধ্যমে সূরাহা করবেন বলে আমাকে জানানো হয়েছে।#

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category