শিরোনাম
কারখানা থেকে ছুটি না মিললেও দুনিয়া থেকে ছুটি পেল গার্মেন্টস শ্রমিক হাসিব কিশোরগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়েছেন স্বরেয়া হোসেন বর্ষা মানুষ মানুষের জন্য, সকলে বন্যার্ত অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানো উচিত…এটিএম হামিদ প্রাকৃতিক দূর্যোগে দিশেহারা সিলেট, থৈথৈ করে বাড়ছে পানি কানাইঘাটে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলের দ্বায়িত্বশীলরা পানি বিশুদ্ধ করন ট্যাবলেট নিয়ে উপজেলার বন্যাগ্রস্ত মানুষের পাশে বানিয়াচংয়ে বাংলা টিভি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন সরকার বন্যার্তদের পাশে আছে ত্রাণের অভাব হবেনা— এমপি মানিক সিলেটে বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরন করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন ঘাটাইল উপজেলায় আশ্রয়ন প্রকল্পের অধীনে বরাদ্দকৃত ঘরে ফাটল ছাতকে বন্যার অবনতি,নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত উপজেলা সদরের সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন
শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১০:০১ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

‘কাজ আনি আমি,করি আমি,আর নাম হয় এমপি গাজী মিলাদের’-সৈয়দ খলিলুর রহমান।

Satyajit Das / ২৩৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২২

সত্যজিৎ দাস(স্টাফ রিপোর্টার):

হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান ১৮ জানুয়ারি রোজ মঙ্গলবার বিকাল ০৩ঃ০০ টার দিকে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।উক্ত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়া, অনলাইন নিউজ পোর্টাল,জাতীয় পত্রিকা সহ স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন,’ প্রকল্পগুলো আমি আনি এবং নামফলক লাগানো হয় এমপি মিলাদ গাজী’র এবং নানা সময়ে এমপির পিএসও আমার প্রকৌশলীকে ভয়ভীতি দেখায়। বাহুবলে দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন হয়নি। অথচ এমপি মহোদয়ের কিছু লোক আমার উন্নয়ন কার্যক্রমে অযথা বিশৃঙ্খলা তৈরি করছে ‘।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) বিকাল ৩ টায় বাহুবল উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে আয়োজিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ খলিলুর রহমান লিখিত বক্তব্যে বলেন,’ বাহুবল উপজেলার কটিয়াদি বাজারে ফিসসেড নির্মাণের জন্য প্রক্রিয়াধীন প্রকল্প এলাকায় উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ মনিরুল ইসলাম ও তার কার্য সহকারী উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে যাওয়ায় বাহুবল-নবীগঞ্জ আসনের সাংসদ শাহ নেওয়াজ গাজী মিলাদ এর পিএস সোহাইল আহমেদ তাদেরকে মোবাইল ফোনে হুমকি দেন এবং এমপির পিএস উপজেলা প্রকৌশলীকে উক্ত প্রকল্প বাদ দিতে বলেন। এর প্রতিবাদে জরুরি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সৈয়দ খলিলুর রহমান ‘।

বাহুবল উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান সংবাদ সম্মেলনে আরও বলেন,’ উপজেলা পরিষদের মাধ্যমে বাহুবল উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ২৭টি রাস্তা নির্মাণ ও মেরামতের জন্য প্রকল্প প্রক্রিয়াধীন। কিন্তু দেওয়ান শাহ নেওয়াজ গাজী মিলাদ এমপি নির্বাচিত হওয়ার তিন বছরেও বাহুবলে দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন হয়নি। অথচ এমপির কতিপয় লোক উপজেলা পরিষদের উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে অযথা বিশৃঙ্খলা তৈরি করছে ‘।

উল্লেখ্য যে, ২০১৯ সালের ১০ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ খলিলুর রহমান ঘোড়া প্রতীকে ২৩,৪৮৩ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ও বর্তমান উপজেলা আ.লীগের উপজেলা সম্পাদক মোঃ আব্দুল হাই নৌকা প্রতীকে পেয়েছিলেন ১৭,৬০৬ ভোট।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন