শিরোনাম
একাই করেন তিনটি সরকারি চাকুরী দ্রব্যমূল্য উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে জগন্নাথপুরে জাতীয় পার্টির প্রতিবাদসভা বড়লেখার হাকালুকি হাওর পারে গৃহনির্মাণ সামগ্রী বিতরণ জামিনে বের হয়ে ফের দুই প্রতারক সহ গ্রেফতার মজিবুর রহমান। গুমান মর্দন প্রবাসী পরিষদ সংযুক্ত আরব আমিরাত গভীরভাবে শোকাহত বৃহত্তর গোলাপগঞ্জ উপজেলার মানব সেবায় নিয়োজিত হবিগঞ্জের মাধবপুরে ১০ কেজি গাজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বানিয়াচংয়ে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত বিশ্বনাথে নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন কমিটি মতবিনিময় সভা আহবায়ক কমিটি গঠন দয়ামীর ইউনিয়ন এডুকেশন ফোরাম ইউ.কে এর উদ্দ্যোগে ফ্রি ব্লাড ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত
বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৯:০৮ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

দ্বিতীয় বারের মতো বিপুল ভোটে বিজয়ী আজমল হোসেন চৌধুরী।

Satyajit Das / ২৪০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

সত্যজিৎ দাস(স্টাফ রিপোর্টার):

সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে একটানা দ্বিতীয় বার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে চমক দেখিয়েছেন সিলেটের হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার ০৪ নং সদর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মরহুম নাজমুল হোসেন চৌধুরীর সুপুত্র জনাব আজমল হোসেন চৌধুরী। সোমবার (৩১ জানুয়ারি) দশম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ৬ষ্ঠ ধাপে ৫০১৮ ভোট বেশি পেয়ে দ্বিতীয় বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তিন প্রার্থী আ.লীগ মনোনীত মোঃ রিফাত ইসলাম মুরাদ(নৌকা) ২৩৯০,স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজল তালুকদার (আনারস) ১৫৭৭ এবং জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী নুরুদ্দিন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী(লাঙ্গল) প্রতীকে পেয়েছেন ১০২৩ ভোট। এবারের নির্বাচনে পাশের মধ্য দিয়ে তিনি আগামী ০৫ বছর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

নির্বাচিত চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী ডেইলি সিলেট নিউজ24’কে বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ,রাব্বুলামীনের দরবারে অশেষ শুকরিয়া। বাহুবল সদর ইউনিয়নবাসী বিপুল ভোটে আমাকে নির্বাচিত করেছেন। এ ঋণ শোধ করার মত নয়,আজীবন সদর ইউনিয়নের মানুষের ভালোবাসার কারাগারে বন্দী থাকতে চাই। ইনশাআল্লাহ গত পাঁচ বছরও কথা রেখেছিলাম, আগামীতেও তার ব্যতিক্রম হবে না।এলাকার জনগণ আমাকে অনেক সম্মান এবং মর্যাদা দিয়েছেন। ভোটারদের এই সম্মান ও মর্যাদাকে কাজে লাগিয়ে তাদের সেবায় মৃত্যুর আগমুহূর্ত পর্যন্ত নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই ‘।

তিনি আরো বলেন,’ যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে আমি আজ দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচিত হয়েছি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ভালবাসা জ্ঞাপন করছি। প্রশাসন কে অসংখ্য ধন্যবাদ সুন্দর একটি ভোট উৎসব উপহার দেওয়ার জন্য। কিন্তু আফসোস ও দুঃখ শুধু আমাকে সমর্থনকারী ভোটাররা নয়,চেয়ারম্যান পদে লড়াই করা সকল প্রার্থীদের সমর্থকেরাই ইভিএম মেশিনে ফিঙ্গার প্রিন্ট জটিলতার সম্মুখীন হয়ে ভোট প্রদান করতে পারেননি। অনেকেই ভোট না দিতে পেরে কান্নাকাটি করেছেন। ৩১ জানুয়ারির ভোটে পুরো ইউনিয়নের ৯টি সেন্টারেই এরকম দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছে। এ সমস্যা দ্রুত সমাধান করা উচিত বলে মনে করি,তাই শপথ গ্রহণের পর আমি হবিগঞ্জ জেলা নির্বাচন কমিশন অফিসারের কার্যালয়ে উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে এ বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো ‘।

উল্লেখ্য যে,গত ৩১ জানুয়ারি ২০২২ইং অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আজমল হোসেন চৌধুরী ঘোড়া প্রতীকে ৭৪০৮ ভোট পেয়েছেন। ২০১৬ সালের ০৪নং বাহুবল সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আজমল হোসেন চৌধুরী (নৌকা) প্রতীকে ৬ হাজার ৩৪৯ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিফজুর রহমান আবুবকর(আনারস) প্রতীকে ৪ হাজার ২৩০ ভোট, সিরাজ মিয়া তালুকদার(ছাতা) প্রতীকে ১ হাজার ৫ ভোট,সামায়ূন কবির চৌধুরী (ধানের শীষ) প্রতীকে ৯৮৭ ভোট এবং ফারুক আহমেদ আখঞ্জী লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছিলেন ৫৪৪ ভোট।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন