শিরোনাম
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন এমপি’র লেখা নতুন বই প্রকাশ। auto share done অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়ে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার হারালেন ‘সোমা’। ঘাটাইল ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সক্ষমতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ সাতক্ষীরার কলারোয়া সীমান্ত থেকে এক অস্ত্র ব্যবসায়ী আটক ইদের আগে শ্রমিকদের বেতন- বোনাস পরিশোধের দাবিতে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের মিছিল সমাবেশ আহঃ যেনো ফুটন্ত গোলাপের পাপড়ি যেদিন বিএনপি’র নেতাকর্মীরা ভোট দিতে পারবেন,সেদিন বিএনপি নির্বাচনে যাবে-গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। কিশোরগঞ্জের পাগলা মসজিদের দানবাক্সে মিললো ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা কুকুর,বিড়ালদের বাঁচাতে আইনি পরামর্শ এবং করনীয়;-বখতিয়ার হামিদ।
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ১০:০৬ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

কিয়ামতের প্রথম নিদর্শন কি!

Coder Boss / ১৬৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০

হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী

কিয়ামতের প্রথম নিদর্শন কি সেই সম্পর্কে আমরা সবাই জেনে নেই।

হজরত আনাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আবদুল্লাহ ইবনে সালামের কাছে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর মদীনায় আগমনের খবর পৌঁছল, তখন তিনি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম’র খেদমতে আসলেন, অতপর তিনি বললেন, আমি আপনাকে এমন তিনটি বিষয়ে জিজ্ঞাসা করতে চাই যার উত্তর নবী ছাড়া আর কেউ অবগত নয়।

তিনি জিজ্ঞাসা করলেন।

১: কিয়ামতের প্রথম নিদর্শন কি ?

২: সর্বপ্রথম খাবার কি, যা জান্নাতবাসী খাবে ?

৩: আর কি কারণে সন্তান তার পিতার সাদৃশ্য লাভ করে? আর কিসের কারণে (কোন কোন সময়) তার মা দের সাদৃশ্য হয় ?

তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, এইমাত্র জিবারাঈল আ. আমাকে এ বিষয়ে অবহিত করেছেন।

বর্ণনাকারী বলেন, তখন আবদুল্লাহ রা. বললেন, সে তো ফেরেশতাগণের মধ্যে ইয়াহুদীদের শত্রু ।
রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন,

১: কিয়ামতের প্রথম নিদর্শন হল আগুন যা মানুষকে পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে তাড়িয়ে নিয়ে একত্রিত করবে।

২: আর প্রথম খাবার যা জান্নাতবাসীরা খাবেন তা হল মাছের কলিজার অতিরিক্ত অংশ।

৩: আর সন্তান সদৃশ হওয়ার রহস্য এই যে পুরুষ যখন তার স্ত্রীর সাথে সহবাস করে তখন যদি পুরুষের বীর্য প্রথমে স্খলিত হয় তবে সন্তান তার সদৃশ হবে আর যখন স্ত্রীর বীর্য পুরুষের বীর্যের পূর্বে স্খলিত হয় তখন সন্তান তার সাদৃশ্যতা লাভ করে।

তিনি বললেন, আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি নিঃসন্দেহে আপনি আল্লাহর রাসূল।

এরপর তিনি বললেন, ইয়া রাসূলাল্লাহ ! ইয়াহুদীরা অপবাদ ও কুৎসা রটনাকারী সম্প্রদায় আপনি তাদেরকে আমার সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করার পূর্বে তারা যদি আমার ইসলাম গ্রহণের বিষয় জেনে ফেলে, তাহলে তারা আপনার কাছে আমার কুৎসা রটনা করবে।

তারপর ইয়াহুদীরা এল এবং আবদুল্লাহ রা. ঘরে প্রবেশ করলেন।

তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাদের জিজ্ঞাসা করলেন, তোমাদের মধ্যে আবদুল্লাহ ইবনে সালাম কেমন লোক ?

তারা বলল, তিনি আমাদের মধ্যে সবচেয়ে বিজ্ঞ ব্যক্তি এবং সবচেয়ে বিজ্ঞ ব্যক্তির পুত্র তিনি আমাদের মধ্যে সর্বোত্তম ব্যক্তি এবং সর্বোত্তম ব্যক্তির পুত্র।

তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, যদি আবদুল্লাহ ইসলাম গ্রহণ করে, এতে তোমাদের অভিমত কি হবে ?

তারা বলল, এর থেকে আল্লাহ তাকে রক্ষা করুক।
এমন সময় আবদুল্লাহ রা. তাদের সামনে বের হয়ে আসলেন এবং তিনি বললেন, আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ নেই এবং আমি আরো সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আল্লাহর রাসূল ।

তখন তারা বলতে লাগল, সে আমাদের মধ্যে সবচেয়ে নিকৃষ্ট ব্যক্তি এবং সবচেয়ে নিকৃষ্ট ব্যক্তির সন্তান এবং তারা তাঁর গীবত ও কুৎসা রটনায় লিপ্ত হয়ে গেল।
(বোখারী শরীফ)

মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের সকলকে উপরোক্ত কথা গুলো বুঝার তাওফিক দান করুন আল্লাহুম্মা আমিন।

লেখকঃ বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ লেখক ও গবেষক হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী ছাহেব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন