আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সন্ধ্যা ৭:০১

বার : বুধবার

ঋতু : শীতকাল

হবিগঞ্জ- বানিয়াচং – নবীগঞ্জ রোডের প্রবেশ দ্বার গুলোতে বিয়ের গাড়ি থামিয়ে হিজরাদের অশালীন আচরণ ও চাঁদাবাজি।।

রিতেষ কুমার বৈষ্ণব( হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি)
হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ, বানিয়াচং এবং নবীগঞ্জে দীর্ঘদিন যাবত হিজরারা এই উপদ্রব করে আসছে।

ধর্মীয়, সামজিক, সাম্প্রদায়িক কিছু বিধি নিষেধ মেনে বিশেষ কিছু ধার্য্য তারিখে আমাদের বাঙালি জাতির বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ঐ দিনটা আমরা কিভাবে পালন করে থাকি অথবা এই দিনের অনুভূতি, নিয়ম কানুন, সম্পর্কে সকলেরই জানা।

অনুসন্ধানে বেড়িয়ে আসে হিজরাদের অভিনব কৌশল আর জঘন্য আচরণ।
কোন এলাকায় বিয়ে হচ্ছে তার খোঁজ নিয়ে হিজরাগন আগে থেকেই বিভিন্ন এলাকার রাস্তার মোড় গুলোতে ২ জন ৪ জন করে ছড়িয়ে ছিঁটিয়ে অবস্থান নেয়, কখনও কখনও একই রাস্তায় কয়েক দফায় নগদ টাকা গুনতে হয় বরপক্ষের লোকজন দের।

টাকা দিতে একটু দেরী করলে অথবা অপারগতা প্রকাশ করলে গাড়িতে থাকা আপন জনদের সামনেই শুরু হয়ে যায় অশ্লীল কথা বার্তা, এবং অশালীন আচরণ।
এমনকি মেয়েদের গায়ে হাত দিয়ে ও কথা বলে।

বিয়ের খবর আর রাস্তায় অবস্থান নেওয়ার বিষয় টা হিজরা গন কিছু কিছু অমানুষ গাড়ির ড্রাইভার এবং বিয়ের অনুষ্ঠানের কিছু হিজরা

বাবুর্চির কাছ থেকে সংগ্রহ করে বলে জানা গেছে।
ভুক্তভোগী অনেকের সাথে কথা বললে তারা জানান- এমন শুভ দিনে আপন জনদের সামনে এইরকম অশ্লীল কথা বার্তা আর অশালীন আচরণ সহ্য করার নয়। তারা এইরকম জঘন্য কৌশল অবলম্বন করে যে, টাকা না দিয়ে আসার কোন উপায়ই থাকেনা।
প্রবাসীদের বাড়ি ফেরার খবর জানলেও হিজরা গন রাস্তায় ওৎ পেতে বসে থাকে বলে জানিয়েছেন কয়েক জন ভুক্তভোগী।

বানিয়াচং – আজমীরি গঞ্জ রোডে হিজরাগন আজও একটি বিয়ের গাড়িতে চাঁদাবাজি করেছে, মেয়েদের সাথে অশালীন আচরণ করেছে।

এক জায়গায় তাদের অবস্থান বেশিক্ষণ থাকে না, আগে থেকেই ঠিক করা থাকে টমটম, মিশুক অটোরিকশা, তাই অল্প সময়ের মধ্যেই পালিয়ে যায়। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে পৌঁছালে সাংবাদিকের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে টমটমে চরে পালিয়ে যায় হিজরা গন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category