আজ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : দুপুর ২:৫৬

বার : রবিবার

ঋতু : হেমন্তকাল

ফ্রী প্রেস অ্যাওয়ার্ড পেলেন সাংবাদিক ‘রোজিনা’ ও ‘বোরহান’ ।

সিলেট নিউজ ডেস্ক:

মুক্ত সাংবাদিকতা এবং তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিত করতে লড়াই করা সাংবাদিকদের প্রতিবছর এ পুরস্কার দেয় ফ্রি প্রেস আনলিমিটেড। গত বছর এ পুরস্কার পেয়েছিলেন ফিলিপিন্সের সাংবাদিক মারিয়া রেসা, যিনি এ বছর শান্তিতে নোবেল পেয়েছেন।
নেদারল্যান্ডসভিত্তিক সংগঠন ফ্রি প্রেস আনলিমিটেড মঙ্গলবার(০২ নভেম্বর ২০২১) এ বছরের ‘ফ্রি প্রেস অ্যাওয়ার্ড’ ঘোষণা করে। রোজিনা এ পুরস্কার পেয়েছেন ‘মোস্ট রেজিলিয়েন্ট জার্নালিস্ট’ শ্রেণিতে। এছাড়া ভারতীয় সাংবাদিক ভাট বুরহান বছরের ‘সেরা নবাগত সাংবাদিক’ ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কার পেয়েছেন।

দ্য হেগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে পুরস্কার গ্রহণ করেন বুরহান। কিন্তু বাংলাদেশ পুলিশ পাসপোর্ট জব্দ করে রাখায় সশরীরে উপস্থিত হয়ে পুরস্কারটি নিতে পারেননি রোজিনা ইসলাম। পাকিস্তানি সাংবাদিক হামিদ মীরের হাত থেকে রোজিনার হয়ে পুরস্কারটি গ্রহণ করেন তার স্বামী মো. মনিরুল ইসলাম।

এ বছর ‘মোস্ট রেজিলিয়েন্ট জার্নালিস্ট’ শ্রেণিতে বাংলাদেশের রোজিনা ইসলামকে পুরস্কৃত করার ব্যাখ্যায় ফ্রি প্রেস আনলিমিটেড বলেছে, “তিনি তার দেশের স্বাস্থ্য খাতের অনিয়ম প্রকাশ্যে এনেছেন এবং এখন তাকে নিজের দেশে বিচার আর দুর্বিপাকের মুখোমুখি হতে হচ্ছে।আমরা দেখেছি,মুক্ত গণমাধ্যম এবং সাংবাদিকরা এখন প্রচণ্ড চাপের মুখোমুখি। এ অবস্থায় বিশ্বব্যাপী সাংবাদিকরা তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে যে অদম্য সাহস আর নিষ্ঠা দেখিয়েছেন, তাতে আমরা মুগ্ধ।”

চলতিবছর ১৭ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে প্রায় ছয় ঘণ্টা আটকে রাখার পর রোজিনাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। সরকারি ‘নথি চুরির চেষ্টার’ অভিযোগে অফিসিয়াল সিক্রেটস আইনে মামলা করা হয় তার বিরুদ্ধে। এনিয়ে সাংবাদিকদের ক্ষোভ-বিক্ষোভের মধ্যে ছয় দিন পর জামিনে মুক্তি পান তিনি।

‘সবচেয়ে দৃঢ়প্রত্যয়ী সংবাদকর্মী’র ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত হয়েছেন রোজিনা। করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতির খবর প্রকাশের জন্য সাহসিকতার স্বীকৃতি হিসেবে এ পুরস্কার দেয়া হয় তাকে। খবর সংগ্রহের সময় প্রশাসনিক হয়রানির শিকারও হয়েছিলেন রোজিনা, বেশ কিছুদিন ছিলেন কারাবন্দি। আর কাশ্মিরি সাংবাদিক ভাট বুরহানকে পুরস্কার দেয়া হয় ‘বছরের সেরা নবাগত’ ক্যাটাগরিতে।

‘ফ্রি প্রেস অ্যাওয়ার্ড’ এর জুরি বোর্ড থেকে বলা হয়েছে, “মহামারীর এই সংকটের সময়ে অনিয়মের তথ্য প্রকাশ্যে আনতে সাংবাদিকদের যে লড়াই,তার সঙ্গে আমরা সংহতি প্রকাশ করছি। সেই সঙ্গে রোজিনা ইসলামের উপর হয়রানি বন্ধ করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category