আজ ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ৪:১৬

বার : শুক্রবার

ঋতু : গ্রীষ্মকাল

উজিরপুরের প্রবাসী ডা. সৈয়দা কাওসারী মালেক’র খাদ্য সামগ্রী পেল ২২৮টি পরিবার।

 

জাকির হোসেন,, বানারীপাড়া।।

বৈশ্বিক করোনাভাইরাস মহামারীতে কর্মহীন হয়ে গৃহবন্ধী হওয়া মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন সৈয়দ আব্দুল মালেক’র পরিবার। তারই ধারাবাহিকতায় এবারে এই মহামারী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় হতদরিদ্র মানুষের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরন কার্যক্রমের অংশ হিসাবে আটিপাড়ার কৃতিসন্তান বর্তমানে আমেরিকা স্থায়ী ভাবে বসবাসরত ডা: সৈয়দ আব্দুল মালেক সাহেবের কন্যা ডা: সৈয়দা কাওসারী মালেক ও তার পরিবার বর্গের সৌজন্যে উজিরপুর ও বানারীপাড়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ২২৮ টি পরিবারের মধ্যে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী (চাল, ডাল, তেল ও সাবান ) গত ২৮ ও ২৯ রোজায় বাড়ী বাড়ী পৌঁছে দেয়া হয়েছে। ডা: সৈয়দা কাওসারী মালেক’র পক্ষে ত্রান বিতরনের সামগ্রিক বিষয়টি তাঁর ভাই কর্নেল (অব:) ইন্জিনিয়ার সৈয়দ আনোয়ার হোসেনের তত্ত্বাবধানে ও অংশগ্রহনে, স্হানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাহায্যে খুব সুষ্ঠভাবে সুসম্পন্ন করা হয়েছে। সাধারন জনগন এই মহতী উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসার মাধ্যমে ডা. কাওসারী মালেকের পরিবারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। সূদুর
আমেরিকায় বসেও মানুষের জন্য মন কাঁদে ডাঃ কাওসারী মালেক ও তার পরিবার বর্গের। মহামারী এই করোনা ভাইরাসে যদি বিত্তবানরা এভাবে ডাঃ কাওসারী মালেক ও তার পরিবার বর্গের মত অসহায়, গৃহবন্ধী মানুষদের পাশে দাড়াতো তাহলে বাংলার মানুষ না খেয়ে থাকতো না। ” ছোট ছোট বালু কনা বিন্দু বিন্দু জল,গড়ে তোলে মহাদেশ, সাগর অতল” এই বানীতে বিশ্বাসী হয়ে সারা বাংলার বৃত্তবান মানুষ যদি স্ব স্ব স্থান হতে সাধ্যমত সহায়তা করত তাহলে খাদ্যের অভাব পূরন করে সকলকে সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসা যেত। উল্লেখ্য এর পূর্বে বৈশ্বিক মহামারী চলাকালীন সময়ে কর্নেল (অব:) সৈয়দ আনোয়ার হোসেন ও তাঁর পরিবারের অর্থায়নে উজিরপুর ও বানারীপাড়া উপজেলার হতদরিদ্র ৪৭০ টি পরিবারের মাঝে ত্রান হিসাবে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়।
মোঃ জাকির হোসেন
বানারীপাড়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category