শিরোনাম
হলি আর্টিজান হামলার ৬ বছর;হয়নি মামলার নিষ্পত্তি। বিশিষ্ট শিল্পপতি জনাব আবু উল রশীদ এর পক্ষথেকে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ করা হয় লোভ-হিংসা ও সংকির্ণ মনোভাবের ঊর্ধ্বে ওঠে মানবতার কল্যাণে কাজ করে যেতে হবে ——-সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী মাধবপুরে কৃষ্ণপুরের ব্রিজটি না হওয়াতে বিকল্প কাঠের সেতু তৈরী করে যানচলাচলে উপযোগী করছেন এলাকাবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসী আজাদ মিয়া ফরুকের পরিবারের পক্ষ থেকে ত্রান বিতরণ মৌলভীবাজার সমিতি সিলেট এর ত্রান ও নগদ অর্থ বিতরন বৃষ্টির মধ্যেও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন ইউ.কে প্রবাসী আলাউদ্দিনের পরিবার শাল্লা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ। ‘ভারত বাংলাদেশের কল্যাণ চায় না’-অধ্যক্ষ ইউনুস আহমেদ। সুবর্ণচরে ব্যবসায়ীর চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধার
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৮:০৪ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

আগামীকাল ২৮ ডিসেম্বর সীতাকুণ্ড পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডে পৌরসভা নির্বাচন।

Coder Boss / ১৮৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২০

সরোয়ার উদ্দিন নিরব
চট্টগ্রাম সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি

সীতাকুণ্ড পৌরসভার ৩৪ হাজার ৮১৩ জন ভোটার ১৭টি কেন্দ্রে প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট প্রদান করতে পারবেন।তরুণ প্রজন্ম সব সময় ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে।তবে পক্ষে বিপক্ষে মতামত যাই থাক না কেন ইসির বড় চ্যালেঞ্জ ভোটার উপস্থিতি নিয়ে।
ব্যালট পেপারের মতো কেউ ইচ্ছা করলেও ইভিএমে ভোট জালিয়াতিও করতে পারবেন না।ভোটার যদি ভোট দিতে কেন্দ্রে না যান, তাহলেও তার ভোট অন্য কেউ দিতে পারবেন না।এর মধ্যে এমন ধরনের সফটওয়্যার রয়েছে যার ভোট কেবল তিনিই দিতে পারবেন।একবার ভোট হয়ে গেলে দ্বিতীয়বার ভোট দেয়ার কোন সুযোগ থাকছে না। ফিঙ্গার প্রিন্ট অথবা এনআইডি অথবা ভোটার নম্বরের মাধ্যমে যাচাইয়ে ভোটার শনাক্ত হওয়ার পরই কেবল একজন ভোটার ভোট দিতে পারবেন।ভোটারের এই শনাক্তকরণ ডিসপ্লেতে পোলিং অফিসার বা এজেন্টরা দেখতে পাবেন। মোটকথা একজন ভোটার শনাক্ত হওয়ার পরই কেবল ইভিএমে ভোট দিতে পারবেন।
পাসওয়ার্ড প্রোটেকটেড হওয়ায় অনুমোদিত কর্মকর্তা ব্যতীত অন্য কারও পক্ষে এটি অপারেট করার সুযোগ থাকছে না। ইভিএম ছিনতাই করে নিয়ে অবৈধ ভোট দেয়াও সম্ভব হবে না। যেটা ব্যালট বাক্সের ক্ষেত্রে সম্ভব।ভোটদানের ক্ষেত্রে বায়োম্যাট্রিক ভেরিফিকেশন ও ব্যক্তির উপস্থিতি বাধ্যতামূলক বিধায় কেন্দ্র দখল করেও ভোট দেয়া সম্ভব হবে না।একজন ভোটার যাচাই-বাছাইয়ের পরই তিনি কেবল ভোট দেয়ার জন্য বুথে প্রবেশ করতে পারবেন। বুথে প্রবেশের পর প্রতীক নির্ধারণের সাদা বাটনে চাপ দেয়ার পরই ভোট নিশ্চিত করতে সবুজ বাটনে চাপ দিতে হবে।সবুজ বাটনে চাপ দেয়ার পর ভোট সম্পন্ন হয়েছে বলে ধন্যবাদ সূচক শব্দ হবে।এরপর হাজারবার বাটন চাপলেও কারও পক্ষে দ্বিতীয়বার ভোট দেয়া সম্ভব হবে না।ভোট শেষে অতিদ্রুত ভোট গণনা করা সম্ভব হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন