রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১৫ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

নড়াইলে সাম্প্রদায়িক তাণ্ডবের নিন্দা জানিয়েছে উদীচী।

সত্যজিৎ দাস / ১৪১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৬ জুলাই, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার:
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে খুলনার নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া গ্রামের সাহাপাড়ায় হিন্দু সম্প্রদায়ের বেশ কিছু বাড়িঘর,ধর্মীয় উপাসনালয় এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী।

এক বিবৃতিতে উদীচীর সভাপতি অধ্যাপক বদিউর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক অমিত রঞ্জন দে জানান,গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা গেছে যে স্থানীয় এক কলেজছাত্রের ফেসবুক পোস্টে ধর্ম অবমাননা করা হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে প্রথমে ওই ছাত্রের বাবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাসভবন এবং এরপর আশপাশের হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের কয়েকটি বসতবাড়িতে ভাংচুর,লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। এছাড়া একটি মন্দিরেও ভাংচুর চালায় উগ্র,ধর্মান্ধ গোষ্ঠী। যদিও ওই কলেজ ছাত্র পোস্টটি তার নামে চালু করা ভুয়া ফেসবুক আইডি থেকে করা হয়েছে বলে দাবি করেছে।

ঘটনার পরপরই স্থানীয় পুলিশ ও প্রশাসন দ্রুত পদক্ষেপ নিলেও ক্ষয়ক্ষতি এড়ানো সম্ভব হয়নি। উদীচী মনে করে,অতীতের যেকোন সময়ের মতো নড়াইলের দিঘলিয়াতেও একই কৌশলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে সাম্প্রদায়িক তাণ্ডব চালানো হয়েছে। এবং সেই কৌশল ঠেকানো যায়নি।

বিবৃতিতে উদীচীর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বলেন,স্বাধীনতার ৫১ বছর পরও ধর্মান্ধ, মৌলবাদী গোষ্ঠী দেশে একের পর এক সাম্প্রদায়িক তাণ্ডব চালিয়েই যাচ্ছে। কক্সবাজারের রামু ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর বা যশোরের মালোপাড়ার মতো ঘটনায় কোন সুষ্ঠু বিচার না হওয়ায় তারা বারবার একই ধরনের তাণ্ডব চালানোর সাহস পাচ্ছে। যদি আগের ঘটনাগুলোর ক্ষেত্রে হামলাকারী এবং উস্কানিদাতা ও পরিকল্পনাকারীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা যেতো তাহলে হয়তো নড়াইলের লোহাগড়ায় নতুন করে এমন তাণ্ডব চালানোর সাহস পেতো না মৌলবাদী,সাম্প্রদায়িক অপশক্তি।

তাই,বারবার এসব ঘটনা ঘটার জন্য সরকার নিজের ব্যর্থতার দায় এড়াতে পারে না মন্তব্য করে অধ্যাপক বদিউর রহমান ও অমিত রঞ্জন দে বলেন,অবিলম্বে নড়াইলের লোহাগড়ার দিঘলিয়া গ্রামের সাম্প্রদায়িক তাণ্ডব চালানোর সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে হবে। একইসাথে এ ঘটনার পেছনে যারা কুশীলব রয়েছে,যারা এর পেছনে ইন্ধন দিয়েছে। তাদের খুঁজে বের করে তাদেরকেও বিচারের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া,ভবিষ্যতে কখনোই যাতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে তা নিশ্চিত করাও সরকারেরই দায়িত্ব বলেও মন্তব্য করেন উদীচীর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন