শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

সিলেটে যখন যেখানে বিদ্যুৎ থাকবেনা। (পিক সময়ে অন্তত একটি ফ্যান এবং অপ্রয়োজনীয় বাতি বন্ধ রাখার অনুরোধ বিউবো’র)

Daily Sylhet news / ৯৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই, ২০২২

সিলেট নিউজ ডেস্ক:

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ এর আওতাধীন সকল গ্রাহককে পিক সময়ে অন্তত একটি ফ্যান এবং অপ্রয়োজনীয় বাতি বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। পাশাপাশি এই দপ্তরের আওতাধীন এলাকাগুলোতে লোডশেডিংয়ের শিডিউল করে দেওয়া হয়েছে। বুধবার (০৬ জুলাই) থেকে এই শিডিউল করে দেওয়া হয়। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড সিলেট অঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী আব্দুল কাদির জানিয়েছেন, পর্যায়ক্রমে সকল এলাকায় লোডশেডিং এর সিডিউল প্রকাশ করা হবে।

বিউবো বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ সূত্রে জানা যায়;- শিবগঞ্জ, টিলাগর, সবুজবাগ, সেনপাড়া, হাতিমবাগ, লামাপাড়া, রাজপাড়া বিকাল ৪টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

উপশহর ব্লক এ, বি, সি, ডি, তেররতন দুপুর ১টা থেকে ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত লোডশেডিং হবে। উপশহর ব্লক- এইচ, আই, জে, ই, এফ, জি, সাদাটিকর রাত ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

যতরপুর, মিরাবাজার, আগপাড়া, ঝেরঝেরিপাড়া সকাল সাড়ে ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত। সোনারপাড়া, মজুমদারপাড়া, পূর্বমিরাবাজার, দর্জিপাড়া, খারপাড়া সন্ধ্যা ৭টা থেকে সাড়ে আটটা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

মেন্দিবাগ পয়েন্ট, ডুবুরিহাওর, নাইওরপুল, ধোপাদিঘীরপাড়, সোবাহনীঘাট ও ওসমানী জাদুঘর রাত সাড়ে ১১টা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

মিরেরচক, পিরেরচক, মুক্তিরচক ও মুরাদপুর এলাকায় বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত লোড-শেডিং হবে।

হকার্স মার্কেট, কালীঘাট, আলী আমজাদ রোড, মহাজনপট্টি, মাছিমপুর ও ছড়ারপার এলাকায় রাত ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

কুশিঘাট, নয়াবস্তি, টুলটিকর, মিরপাড়া, মেন্দিবাগ, সাদাটিকর, নোয়াগাও, শাপলাবাগ ও মেন্দিবাগ এলাকায় বিকাল সাড়ে ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

চালিবন্দর, কাষ্টঘর, সোবহানীঘাট, বিশ্বরোড, জেলখানা, ওসমানী জাদুঘর ও পৌরমার্কেট (পৌরবিপনী) এলাকায় সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

কাজিটুলা, মানিকপীর মাজার, নয়াসড়ক, বারুতখানা, জেলরোড, হাওয়াপাড়া ও চারাদিঘীরপাড় এলাকায় রাত সাড়ে ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

কুমারপাড়া, নাইওপুল, ধোপাদিঘীরপাড় ও ঝর্ণারপাড় এলাকায় দুপুর ১টা থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে।

বালুচর, আরামবাগ, আল-ইসলাহ, নতুনবাজার, গোপালটিলা, আলুরতল ও টিভি গেইট এলাকায় বেলা আড়াইটা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত লোডশেডিং হবে। রায়নগর,ঝরর্ণারপাড়, দর্জিবন,বসুন্ধরা,খরাদিপাড়া,দপ্তরিপাড়া ও আগপাড়া এলাকায় বিকেল সাড়ে ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত লোড-শেডিং হবে।

বিউবো বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী শামস-ই আরেফিন জানান,’সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রাথমিক একটি রুটিন করা হয়েছে। উৎপাদনে বেশি ঘাটতি না হলে আমরা চেষ্টা করবো এই রুটিন ফলো করতে। তবে ঘাটতি বেশি হলে এই সময়ের ব্যত্যয় ঘটতে পারে। অথবা ঘাটতি কম হলে তার চাইতেও কম সময় লোডশেডিং হতে পারে ‘।

এর আগে গত মঙ্গলবার (০৫ জুলাই) সকালে প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্টের (পিজিআর) ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে ;-অধিক ফসল উৎপাদন ও বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার পাশাপাশি সঞ্চয় করার এবং দেশব্যাপী খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে যেকোনো সংকট মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা সেনানিবাসের পিজিআর সদর দপ্তরের অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

সরকারপ্রধান বলেন,চলমান করোনাভাইরাস এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে আমেরিকা, ইংল্যান্ড,গ্রেট ব্রিটেনের মতো উন্নত দেশগুলোসহ বিশ্বব্যাপী মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধি পাচ্ছে। পাশাপাশি কয়লা না পাওয়া এবং গ্যাস ও ডিজেলের মতো বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী উপাদানের অব্যাহত মূল্যবৃদ্ধির কারণে সেখানেও এখন বিদ্যুতের তীব্র সংকটের সৃষ্টি হয়েছে। যুদ্ধের কারণে নিয়মিত জাহাজ চলাচল না করায় বিশ্ব বর্তমানে পরিবহন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে,পরিবহন ব্যয় অত্যধিক বৃদ্ধি পেয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন,‘বিদ্যুতের ব্যাপারে আমাদের শুধু সাশ্রয়ী হলেই চলবে না। আমি যেমন চিন্তাও করেছি কিছুটা সময় বিদ্যুৎ উৎপাদন একটু কমিয়ে দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদনের যে উপাদানগুলো সেগুলো যেন আমরা কম ব্যয় করতে পারি ’।

সিলেট নিউজ/এসডি.


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন