শিরোনাম
সোনার বাংলা আদর্শ ক্লাবের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন ,সভাপতি-রিপন সম্পাদক- টিপু ২১শে ফেব্রুয়ারি শুধু একটি দিন নয়, প্রেরণার উৎস অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকায় নারীপুরুষসহ গ্রেপ্তার ৫ ইসলামের দৃষ্টিতে মাতৃভাষার গুরুত্ব ও তাৎপর্য জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখেননি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক প্রধান শিক্ষক মহান ২১শে ফেব্রুয়ারি ভাষা শহীদ দিবস উপলক্ষে পঞ্চদশ সমাজ কল্যাণ সংস্হার আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত২০২৪ইং একজন প্রসূতি মাকে রক্ত দিয়ে জীবন বাঁচালেন শ্রীমঙ্গল থানার ওসি বিনয় ভূষন রায় তাহিরপুরে মাদানী ভক্তা ইস্যুতে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে হামলা ও ভাংচুর, আটক ৫ হবিগন্জের মাধবপুরে ১৪ কেজি গাঁজা পাচারের সময় ০২ জন মাদক ব্যাবসায়ীকে গ্রেফতার করে মনতলা তদন্ত কেন্দ্রর পুলিশ শ্রম আদালতে মামলা চলাবস্থায় শেভরনের কর্মীদের টার্মিনেশন আদেশ হাইকোর্টে স্থগিত
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

মৌলভীবাজারে ৮ বছরের শিশু ধর্ষণকারী হান্নান মিয়া নবীগঞ্জ থেকে আটক

রিপন মিয়া / ১০৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১১ মার্চ, ২০২৩

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:-

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১১ নং মোস্তফাপুর ইউনিয়ন, ৩ নং ওয়ার্ড লামা জগন্নাথপুর গ্রামের জসিম মিয়ার মেয়ে ফাতেমা আক্তার মিম (৮) কে ধর্ষণ করেছে হান্নান মিয়া (৫৫) নামের এক বৃদ্ধ।

জানা যায় ধর্ষণকরী হান্নান মিয়া পেশায় একজন টমটম চালক। তার পৈতৃক নিবাস
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার আমতৈল ইউনিয়নের মাসকান্দি (বলরামপুর) গ্রামে।

বর্তমানে সে দীর্ঘ ৬ বছর যাবৎ ১১ নং মোস্তফাপুর ইউনিয়ন এর ৩নং ওয়ার্ড লামা জগন্নাতপুর গ্রামে বসবাস করে আসছে।

স্থানীয়সূত্রে জানা যায় ধর্ষক হান্নান মিয়া তার নিজ বাড়ি মাসকন্দী গ্রামে এর আগেও একই ধরণের ঘটনা ঘটায় এবং দুটি শিশুকে শারিরীক নির্যাতন করে।
পরবর্তীতে দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর সে লামা জগন্নাথপুর গ্রামে বসবাস করতে শুরু করে।

ফাতেমা আক্তার মিম এর মা সাজনা বেগম জানান গত ৮ই মার্চ ২০২৩ খ্রি. (বুধবার) বিকাল ৪:০০ ঘটিকার সময় মিম আক্তার বাড়ির পাশের মাঠে বন্ধুদের সাথে খেলাধুলা করছিল।সেখান থেকে মিম আক্তার ও মাইশা নামের আরেকটি মেয়েকে ঢেকে নিয়ে যায় হান্নান মিয়া।
তখন মিম আক্তার কে একটি ঘরে আটক করে ধর্ষণ করে হান্নান মিয়া।

ধর্ষণের পর মিম তার মায়ের কাছে কাপর পালটানোর কথা বললে তার মা দেখতে পান মেয়ের শরীর থেকে রক্তক্ষরণ হচ্ছে,তিনি মেয়েকে জিজ্ঞাসা করলে উত্তরে মেয়ে কিছুই বলতে পারেনি।প্রচন্ড রক্তক্ষরণ হওয়ার কারণে তিনি সাথে সাথে মেয়েকে নিয়ে মৌলভীবাজার ২৫০শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে রওয়ানা হলে রাস্তায় টমটম চালক হান্নানের সাথে দেখা হয় এবং তার গাড়ি করে হাসপাতালে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রোয়ানা হলে সে তাদেরকে সদর হাসপাতালে না গিয়ে অন্যত্র ডাক্তার দেখাতে জোর জবস্তি করে।
কিন্তুু তারা এতে রাজি না হলে শেষমেশ চালক হান্নান মিয়া তাদেরকে নিয়ে সদর হাসপাতালে যেতে বাধ্য হয়।

সদর হাসপাতালে গিয়ে হান্নান মিয়া গাড়ি ভাড়া না নিয়ে উল্টো নির্যাতিতা ‘মিমে’র মায়ের কাছে কিছু টাকা দিতে চাইলে মিমের মা সাজনা বেগম টাকা গ্রহণ করেন নি।অনেক চেষ্টার পর টাকা দিতে ব্যর্থ হলে হান্নান মিয়া দ্রুত হাসপাতাল এলাকা পরিত্যাগ করে।

মিমকে হাসপাতালে নিয়ে প্রবেশ এর পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মিম কে দেখে বলেন এটি পুলিশ কেইস,থানায় গিয়ে আগে মামলা করতে হবে,তা না হলে তারা ভিক্টিমকে কোন ধরণের চিকিৎসা সেবা দিতে পারবেন না।

মিমের মা তখন মিমকে একাকী আলাদা একটি রুমে নিয়ে বিষয়টি জানতে চাইলে সে জানায় ওই টমটম চালক হান্নান তাকে নির্যাতন করে।

মিমের মূখ থেকে সম্পূর্ণ বিষয় জানতে পেরে মিমে’র বাবা সঙ্গে সঙ্গে মৌলভীবাজার মডেল থানায় “নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধীত ২০২০” একটি মামলা দায়ের করেন যার মামলা নম্বর হচ্ছে ১৪/৮৩।

মামলা দায়ের করার পরবর্তীতে নির্যাতিতা মিম কে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং বর্তমানে সেখানে তাকে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

এ প্রতিবেদক এই বিষয়ে জানতে রুজুকিত মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত এস আই মুখলেছুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং তিনি জানান নির্যাতনকারী হান্নান পলাতক রয়েছিল। গতকাল ১০ মার্চ রাত আনুমানিক ৯:৫০ মিনিটের সময় তাকে নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জ বাজার থেকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

বিভাগের খবর দেখুন