শিরোনাম
বানারীপাড়ায় প্রিয় শিক্ষক আক্কাস আলী খান’র স্মরনে দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির পক্ষ হতে শোক সভা অনুষ্ঠিত দায়িত্বশীল চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রহিম ঘাটাইলে বউ চলে যাওয়ায় ঘটককে কুপিয়ে মারলো যুবক বৈশ্বিক জলবায়ু আন্দোলনে মৌলভীবাজারের স্বপ্ন ছোয়াঁ ফাউন্ডেশন সুকৌশলে অদিতাকে হত্যা করলেন ঘাতক রনি,আদালতে স্বীকারোক্তি সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাবিনা ও তার মাকে সংবর্ধনা জগন্নাথপুর হাসপাতালে বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা করাতে আসা রোগীরা অশোভন আচরণের শিকার :১০ টাকা করে আদায় অদিতি’কে ধর্ষণ করে জবাই ও হাতের রগকেটে হত্যা;আটক ১ জমি জায়গা নিয়ে দ্বন্দ্বে চাচাতো ভাইদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ১ জমির আহমদ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে মাদক বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৩২ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

মণিরামপুরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ভাই ও ভাইপোর হাতে অবসরপ্রাপ্ত মাদ্রাসা শিক্ষক খুন

Coder Boss / ১০১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

রাকিবুল হাসান সুমন, যশোর জেলা প্রতিনিধি:

মণিরামপুরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আপন ভাই ও ভাইপোর হাতে খুন হয়েছেন আব্দুস সাত্তার (৬৫) নামের অবসরপ্রাপ্ত এক মাদ্রাসা শিক্ষক। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ পারভেজ (২৬) নামে নিহতের এক ভাইপোকে আটক করেছ। ময়নাতদন্তের জন্য সন্ধ্যার পর নিহতের মরদেহ পুলিশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত ইব্রাহিম গোলদারের ৫ পুত্র যথাক্রমে (অবসরপ্রাপ্ত মাদ্রাসা শিক্ষক) আব্দুস সাত্তার, আব্দুল হামিদ, জয়নাল আবেদীন, আব্দুল কুদ্দুস ও রোকনুজ্জামনের মধ্যে ৮৭ শতক জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আর এ ঘটনার জের ধরে পাঁচ ভাই দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েন। এর মধ্যে আব্দুস সাত্তারের পক্ষে অবস্থান নেয় জয়নাল আবেদীন ও আব্দুল কুদ্দুস। বাকী দুই ভাই আব্দুল হামিদ ও রোকনুজ্জামান তাদের মেঝ ভাই আব্দুস সাত্তারের উপর ক্ষিপ্ত ছিলেন।

উক্ত জমির বিরোধ নিয়ে ইতোপূেের্ব ভাইদের মধ্যে একাধিক শালিস বৈঠক হয়। ফলে পূর্ব বিরোধের জের ধরে গতকাল শুক্রবার বিকেলে আব্দুল হামিদ তার ভাই রোকনুজ্জামান ও আব্দুল হামিদের পুত্র পারভেজসহ তাদের পক্ষের লোকজন আব্দুস সাত্তারের উপর হামলা চালায়। এক পর্যায় এলোপাতাড়ি লাথি ও কিল-ঘুষিতে তিনি জ্ঞান হারান। পরে আব্দুস সাত্তারকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

ঘটনার পরপরই হামলাকারীরা পালিয়ে গেলেও পুলিশ নিহতের ভাইপো পারভেজ হোসেনকে আটক করে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে মণিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, উক্ত ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন