আজ ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ৯:৪৫

বার : সোমবার

ঋতু : শীতকাল

ফ্রান্সে মহানবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে তালজাঙ্গা ইউনিয়নে বিক্ষোভ মিছিল

আল-মামুন খান, তাড়াইল (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে কটাক্ষ করে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করেছেন কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার তালজাঙ্গা ইউনিয়নের ইমাম-উলামা ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শত শত শিক্ষার্থীসহ সর্বস্তরের জনগণ।

জানা যায়, শুক্রবার (৬ নভেম্বর) তালজাঙ্গা ইসলামী সংগঠনের উদ্দ্যোগে তালজাঙ্গা আলীম মাদ্রাসা প্রাঙ্গণ হতে আলেম- উলেমা ও তালজাঙ্গা ইউনিয়নের সর্বস্থরের জনগন বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে তালজাঙ্গার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে মিলিত হয়। তালজাঙ্গা ইসলামী সংগঠনের সভাপতি মোবারক মাস্টার বলেন, ফ্রান্সে সরকারের মদতে ইসলামকে অবমাননা করে রাসুল (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। এসময় আলেমরা বাংলাদেশ সরকারের কাছে কিছু দাবী তুলে ধরেন, ফ্রান্সের পণ্য বয়কট করতে হবে। ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে ফিরিয়ে আনতে হবে। বাংলাদেশে নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে ফ্রান্সে ফিরিয়ে দিতে হবে। ফ্রান্সে বসবাসরত মুসলিমদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ অন্যান্য দাবী উত্তাপন করা হয়।

বক্তব্য রাখেন, তালজাঙ্গা ইউনিয়ন মুজাহিদ কমিটির সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সেলিম খান, তালজাঙ্গা ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক জুয়েল, তাড়াইল উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক সারোয়ার আলম, দেওথান কওমি মাদ্রাসার সভাপতি আঃ ওয়াদুদ ভূইয়া, আসাদুল ইসলাম ও মাওলানা শামছুলহূদা প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ফ্রান্সে সরকারের প্রত্য মদতে ইসলামকে অবমাননা করে রাসুল (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে আজ আমরা এখানে সমবেত হয়েছি। শুধু ফ্রান্সে নয়, বিশ্বের অনেকগুলো দেশে এ ধরনের কর্মকাণ্ড বেড়ে গেছে। আমরা সেই সব ঘটনার নিন্দা জানাই। একটি সেক্যুলার রাষ্ট্র সরাসরি কোনও ধর্মকে আঘাত করে কিছু করতে পারে না। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং সারাবিশ্বের মুসলমান দেশকে প্রতিবাদ জানানোর আহ্বান জানাচ্ছি। ফ্রান্সের শার্লি এবদো নামে একটি ম্যাগাজিন নবী করিম (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করেছে। বাক স্বাধীনতা এমনভাবে উপভোগ করতে হবে যাতে তা অন্য কোনও ধর্ম বা কারও ধর্মীয় বিশ্বাসকে আঘাত না করে। মুহাম্মদ (সা.)-কে মুসলমান জাতি তাদের নয়নের মনি কোটায় স্থান দিয়েছে। তাকে অমর্যাদা করে ফ্রান্সে যা করা হয়েছে আমরা তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category