আজ ২৭শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ৭:৫০

বার : সোমবার

ঋতু : গ্রীষ্মকাল

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ অফিসে হামলা ও বাসাবাড়িতে ভাঙচুর-লুটপাটের ঘটনায় ২৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৪শ জনকে আসামি করে সদর থানায় মামলা দায়ের।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

গত ১৯ এপ্রিল সোমবার দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকা অফিসে হামলা ও পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ইঞ্জিনিয়ার সুশান্ত দাস গুপ্তর শ্বশুড়ের বাসা মঞ্চুরী ভবনসহ একই ভবনে থাকা ১০ থেকে ১৫টি বাসাতে হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাটে ঘটনায় অবশেষে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত শনিবার (২৪এপ্রিল) রাতে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক সুশান্ত দাস গুপ্ত বাদি হয়ে হবিগঞ্জ সদর থানায় ২৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪শ জনকে আসামি করে এই মামলাটি দায়ের করেন। সদর থানার মামলা নং-২০/২০২১। মামলা দায়ের করার পরপরই সেটি রেকর্ড করা হয়েছে। দায়ের করা মামলায় আসামিরা হলেন- ফরহাদ হোসেন কলি,পিতা-শামছুর রহমান উমদা মিয়া চৌধুরী বাজার হবিগঞ্জ, এনামুল হক চৌধুরী, পিতা-হাজী মফিজ মিয়া গোসাইপুর হবিগঞ্জ, নাজমুল হোসেন আনার, পিতা-উমদা মিয়া চৌধুরী বাজার হবিগঞ্জ, ফজলে রাব্বী রাসেল, পিতা-আবু লেইছ মিয়া কিবরিয়া ব্রিজ নদীরপাড় সংলগ্ন হবিগঞ্জ, মহিবুর রহমান মাহি,পিতা-কিম্মত আলী উত্তর শ্যামলী হবিগঞ্জ, সবুজ মিয়া,পিতা-কবির মেম্বার,উমেদনগর হবিগঞ্জ, মঈনুদ্দিন চৌধুরী সুমন,পিতা-খয়ের উদ্দিন চৌধুরী,নাতিরাবাদ হবিগঞ্জ,সামছু মিয়া,পিতা-মৃত মোক্তার হোসেন,নোয়াহটি উমেদনগর, সাইদুর রহমান,পিতা-মৃত মোক্তার হোসেন,নোয়াহাটি উমেদনগর,সিরাজুল ইসলাম শান্ত,পিতা-দিদার আলী রিচি,ইসতিয়াজ রাজ চৌধুরী,পিতা-ফজলুর রহমান কোর্ট স্টেশন হবিগঞ্জ,শাহ আরজু মিয়া,পিতা-সওদাগর মিয়া,মুরাদপুর বানিয়াচং, সাব্বির আহমেদ রনি,পিতা-ছালেহ আহমেদ বহুলা হবিগঞ্জ, ফয়জুর রহমান রবিন,পিতা-আব্দুর রহমান,চৌধুরী বাজার হবিগঞ্জ,সেবুল মিয়া,পিতা-আব্দুল মালেক সুলতান মাহমুদপুর হবিগঞ্জ, ধ্রুবজোতি দাশ টিটু,পিতা-বীরেশ দাস,তিনকোনা পুকুরপাড় হবিগঞ্জ, বিপ্লব রায় সুজন,পিতা-বিজন রায়,চিড়াকান্দি হবিগঞ্জ, মাহবুবুর রহমান মোহন,পিতা-উমর আলী,উমেদনগর আলগা বাড়ি হবিগঞ্জ, পংকজ কান্তি দাশ পল্লব,পিতা-সুধারঞ্জন দাস,অনন্তপুর হবিগঞ্জ,কৌশিক আচার্য্য পায়েল,পিতা-প্রভাষ আচার্য্য,টাউন হল রোড হবিগঞ্জ, উৎপল রায়,পিতা-গৌরী শংকল রায়,চিড়াকান্দি হবিগঞ্জ,সাবাজ মিয়া,পিতা-রমিজ আলী,হামিদুর রহমান জুনু,পিতা-বাবুল মিয়া নাতিরাবাদ হবিগঞ্জ,ফারুক মিয়া,পিতা-আরজু মিয়া ও তারেক মিয়া,পিতা-কাসেম মিয়া,চৌধুরী বাজার হবিগঞ্জ।

মামলা সুত্রে জানা যায,হবিগঞ্জ থেকে প্রকাশিত দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় কিছু দিন যাবত পত্রিকায় প্রকাশিত সত্য ঘটনার উপর ভিত্তি করে সংবাদগুলো প্রকাশের পর আসামীগণ সম্পাদক সুশান্ত দাস গুপ্তর উপর চরমভাবে আক্রোশান্বিত হয়ে উঠে। বিশেষ করে গত ৮ এপ্রিল দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় প্রকাশিত “সদর থানায় এমপি পিএ সুদীপ দাসের অযাচিত হস্তক্ষেপ,শেখ সেবুল এর কবল থেকে সন্তান ফিরে পাচ্ছেন না এক অসহায় মা”, ১১এপ্রিল প্রকাশিত “হবিগঞ্জ ক্রীড়াঙ্গনে বছরের পর বছর চলছে লুটপাট,জেলা ক্রীড় সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন কলির একচ্ছত্র নৈরাজ্য,জামানত ও ভাড়ার টাকা জমা হয়নি নির্দিষ্ট ব্যাংক এ্যাকাউন্টে”১৪এপ্রিল প্রকাশিত “ মন্দিরের স্থানে সালমান ভবন উদ্বোধন করলেন আবু জাহির এমপি,বিএনপি থেকে আগত আওয়ামী লীগ নেতার দখলে লুকড়ার ২শ বছরের পুরনো শ্রী শ্রী গোপাল জিউ আখড়া”১৮ এপ্রিল প্রকাশিত “হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভ্যাকসিন নিতে এসে রেডক্রিসেন্ট এর পংকজ কান্তি দাশ পল্লবের নেতৃত্বে মারধরের শিকার,মুসলিম কোয়ার্টারের তৌফিক”,১৯ এপ্রিল প্রকাশিত “দৈনিক আমার হবিগঞ্জের মোটরসাইকেল রিচি গ্রামের আইড়াকোনা থেকে উদ্ধার গ্রেফতার-১”ইত্যাদি সংবাদ দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে হলে আসামীগণ তাদের মদদদাতা ও সহযোগীরা ভীষন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৯ এপ্রিল রোজ সোমবার দুপুর আনুমানিক ২ ঘটিকার সময় আসামীগণ রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ায় থেকে শতশত বেআইনি জনতা মিলিত হয়ে দেশীয় মারাতœক অস্ত্র, লাঠি,টেটা, ফিকল নিয়ে দলবদ্ধভাবে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক সুশান্ত দাস গুপ্তর শ্বশুড়ের বাসা মঞ্জুরি ভবনে হামলা চালায়। একই ভবনে থাকা সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা করে বাসায় রাখা আসবাবপত্র,ফ্রিজ,টিভি,ওয়াশিং মেশিন,নগদ টাকা,স্বর্ণালঙ্কারসহ মূল্যবান জিনিসপত্র লুটপাট করে নিয়ে যায় তারা। একপর্যায়ে সেখানে থাকা দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক সুশান্ত দাসকে প্রাণনাশের উদ্দেশ্যে তার উপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালানো হয়। বিষয়টি বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিকস মিডিয়ায় ব্যাপক ভাবে প্রচার হলে দেশজুড়ো তোলপাড় সৃষ্টি করে। এই ঘটনায় সুশান্ত দাস গুপ্ত বাদি হয়ে গত শনিবার (২৪এপ্রিল) রাতে হবিগঞ্জ সদর থানায় ২৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪শ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়ের করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি মাসুক আলী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category