আজ ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ৪:৩৮

বার : শুক্রবার

ঋতু : বর্ষাকাল

শ্রীমঙ্গল ঈদ উপলক্ষে ইনসাফ সমাজ কল্যাণ যুব সংগঠনের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী ও ঈদ বস্ত্র বিতরণ

বিশেষ প্রতিনিধিঃ-
শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৫ নং কালাপুর ইউনিয়নের সামাজিক সংগঠন ইনসাফ সমাজ কল্যাণ যুব সংঘের উদ্যোগে গরীব ও দিন মজুর অসহায়দের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী ও শিশুদের ঈদের কাপড় বিতরণ করা হয়েছে।
গত রোববার ২৬ রামাদ্বান সারা ইউনিয়নের শতাধিক দিন মজুর অসহায় পরিবারের মধ্যে এসব খাদ্য সামগ্রী ও কাপড় বিতরণ করেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
এসময় তারা প্রত্যেকের বাড়ী বাড়ী গিয়ে এসব সামগ্রী পৌঁছে দেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উক্ত সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান, সাবেক সহ-সভাপতি শেখ ফুয়াদ ইসলাম, বর্তমান সভাপতি মোঃ সজিবুর রহমান টিপু,সাবেক-সহ সভাপতি আব্দুল হাকিম, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান রনি, সদস্য আঃ সালাম রাজিব, কামরুল হাসান সুমন এবং নাহিদ হোসেন সহ এলাকার ব্যাক্তিবর্গ । উক্ত
সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান রনি জানান “এধরণের কাজ করতে অনেক ভালো লাগে মনে শান্তি পাওয়া যায় । পাশাপাশি সংস্থাটি বিভিন্ন কার্যক্রমে সদস্যরা সর্বদা থাকে ঐক্যবদ্ধ, তাদেরই দেওয়া সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে কালাপুর ইউনিয়নবাসীর মুখে হাসি ফুটানোই আমাদের অন্যতম লক্ষ্য এবং সেবা করে যাওয়া । বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচারের অন্যতম কারণ আশে পাশে সকলকে এসব কাজে উৎসাহিত করা এবং সার্বিক সহযোগিতা করা আমাদের মহত্ত্ব উদ্দেশ্য আল্লাহ পাক কে রাজি খুশি করা মানব জাতিকে খুশি হলে আল্লাহ খুশি । আগামীতেও আমরা গরীব-দুঃখী মেহনতী দিন মজুর মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। আজ যেমন করোনা কালীন সময় কেটে খাওয়া মানুষ খুবই অসহায় আমরা তাদের পাশেই আছি থাকবো” ইনসাফের সদস্য কর্মীরা ধীরে ধীরে স্ব স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত ও বৃত্তবান এবং প্রতিষ্টিত পরিবারের সন্তান এতে তাদের আগ্রহ অনুপ্রেরণা যোগায় বলে জানা যায়।
ইনসাফ কর্মীরা জানান এক সময় আমাদের কিছুই করার ছিলো না। হঠাৎ কমিউনিটিস্ট মিজানুর রহমান এমন এক সংগঠনের প্রস্তাব দেন। যার ফলশ্রুতিতে আজকের ইনসাফ সমাজের সর্বস্তরের জনসাধারণ কে নিয়ে চিন্তা চেতনায় আমৃত্যু বিশ্বাসী ।
উল্লেখ্য ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এই সংগঠন । এরপর থেকে এই সংগঠন সামাজিক কর্মকান্ডে অনেক ভূমিকা পালন করায় ও মাদক নির্মূলে বিশেষ ভূমিকা রেখে আসছে। ততপর তাদের এক সদস্য আদনান জাকারিয়া বলেন “ইনসাফ সর্বদাই কল্যাণকর সংগঠন, আমরা মানব কল্যানে বিশ্বাসী, এবং আমি আন্তরিকতার সহিত তা প্রচন্দের মধ্যে এটি একটা প্রচন্দ। আমি হয়তো গ্রামে থাকি না তারপরও দুর থেকে তাদের সব খবরা খবর রাখি,সর্ব সময়ে যোগাযোগ রাখি, ভালো লাগে তাদের কর্মকাণ্ড, এধরনের সহযোগিতায় এলাকার বৃত্তবান লোকেরা এগিয়ে এতে ক্ষেতে খাওয়া মানুষের খুবই উপকার হবে। এগিয়ে যাক ইনসাফ সংগঠন মানবতার সেবায়” এটায় কাম্য । সরেজমিনে জানা যায় প্রতিবছর এই সংগঠনটি বিভিন্ন সামাজিক উপকারী কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। ফলে স্বেচ্ছা সেবী এ সংগঠন যুব সমাজের মাঝে ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে এবং সবার মাঝে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এ সংগঠন সব সময় পাশে দাঁড়াবে প্রতিটি মানুষের কল্যানে অসহায় পরিবার ও দিন মজুর লোকদের সহায়তা সহযোগিতা চলমান অব্যাহত থাকবে মর্মে উল্লেখ্য করেন এত সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category