আজ ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ৭:৩৫

বার : বুধবার

ঋতু : শরৎকাল

৭১’র পরাজিত শত্রুদের সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিতে ছাত্রলীগকে মুখ্য ভুমিকা পালন করতে হবে

রাকিবুল হাসান সুমন, যশোর জেলা প্রতিনিধি:

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরেও যে অপশক্তি বাংলাদেশকে মেনে নিতে পারেনি, সেই অপশক্তিই ৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিলো। ৪৭ সালের ভারত বিভক্তির পর ২৩ বছর পাকিস্থানী শোষন, জুলুম-নির্যাতন এবং দূঃশাসনের হাত থেকে রক্ষার জন্য জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঐতিহাসিক ৬ দফা পেশ করেছিলেন। কিন্তু তৎকালিন মুসলিমলীগ ও কংগ্রেস নেতৃবৃন্দ ৬ দফা অন্দোলনকে নস্যাৎ করতে চেয়েছিল। এমনকি পাকিস্থানী শাসকদের নির্যাতনের ভয়ে পূর্বপাকিস্থানের আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ৬ দফাকে প্রত্যাখান করতে চেয়েছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন ছাত্রলীগকে সেদিন ৬ দফার প্রচার-প্রচারণের দায়িত্ব দিলে-তারা অকুতোভয় সৈনিকের ন্যায় শহরে, গ্রাম-গঞ্জে ৬দফা প্রচার করে তার মর্মবানী বুঝাতে সক্ষম হয়েছিল। যে কারণে সাধারণ মানুষের মধ্যে আন্দোলনের তীব্রতা জাগ্রত হয়েছিল। ফলশ্রুতিতেই দীর্ঘ ৯মাস মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত হয়েছিল স্বাধীনতা। দেশের মানুষ তথা মুক্তিযোদ্ধারা ছিনিয়ে এনেছিল একটি পতাকা এবং বাংলাদেশ নামে একটি মানচিত্র। তাইতো আজ আমরা বাঙ্গালী হিসেবে বিশ্বব্যাপী গর্ব করে বলতে পারি-আমরা বাঙ্গালী। আমাদের দেশ বাংলাদেশ। সুতরাং আজ ১৫ আগস্টের শোককে শক্তিতে রুপান্তরিত করে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ-সমাপ্ত করতে ঐক্যবদ্ধতার মধ্যে থেকেই আমাদেরকেই এগিয়ে নিতে হবে। আর এ কাজের মুখ্য ভুমিকা পালন করতে হবে ছাত্রলীগকেই।

রোববার সকাল ১১ টায় মণিরামপুর উপজেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী, ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও শোকাবহ আগস্ট যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন উপলক্ষে শোকসভা, দোয়া মাহফিল ও গণভোজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য (এমপি)।

উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত ছাত্রলীগের আহবায়ক মুরাদুজ্জামান মুরাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি আরও বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী বঙ্গবন্ধু দেশের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য ২৫ বিঘা পযর্ন্ত জমির খাজনা মওকুফ করেছিলেন। কৃষিকে বাঁচাতে, কৃষিখাতের উন্নয়নের জন্য কল-কারখানা গুলো জাতীয় করণ করেছিলেন। বঙ্গবন্ধু সদ্য স্বাধীন দেশ পুনর্গঠনে সকলকে নিয়ে আত্মনিয়োগ করে উন্নয়নের দিকে ধাবিত করছিলেন- ঠিক তখনি বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ্জ্ব অধ্যক্ষ কাজী মাহমুদুল হাসান বলেন, ৭১’র পরাজিত শত্রু ও দেশীয় ষড়যন্ত্রকারিরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিলো। এ নৃশংস হত্যাকান্ডের মধ্যে দিয়ে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও আওয়ামী লীগকে ইতিহাসের পাতা থেকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিলো। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস আজ ঘাতকরাই ইতিহাসের আস্তা কুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক প্রভাষক ফারুক হোসেন বলেন, ৭৫ পরবর্তী দীর্ঘ ২১ বছর বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারন করে তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বঙ্গবন্ধুর আজীবন লালিত স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়তে ভিশন ২০২১ এবং মিশন ৪১-এর চিন্তা-চেতনা মাথায় নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন। বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ এখন মাথা উচুঁ করে দাড়িয়েছে। উন্নয়নের স্বর্ণশিখরে আরোহন করে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। সুতরাং ৩০ লক্ষ শহীদ আর ২ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত একটি লাল-সবুজের পতাকা এবং একটি স্বাধীন দেশ হিসেবে সেটাকে রক্ষা করতে যুবলীগ ও ছাত্রলীগকে এগিয়ে আসতে হবে। উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফজলুর রহমানের পরিচালনায় শোকসভায় ভিডিওি কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য প্রদান কালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সব সময় ঐক্যবদ্ধ। দেশের উন্নয়নে সহযোগিতা করতে ছাত্রলীগ বদ্ধপরিকর।

বিশেষ আলোচক হিসেবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য বলেন, পকিস্থানের প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হয়েছিল। সুতরাং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন যেন ভুলন্ঠিত না সেদিকে আমাদের সকলকে সজাগ থাকতে হবে।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন সাবেক ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগনেতা জিএম মজিদ, তরুণ আইনজীবি অ্যাড. বশির আহমেদ খান, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান উত্তম চক্রবর্তী বাচ্চু, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সম আলাউদ্দীন, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফরহাদ হোসেন, জামাল হোসেন, পৌর যুবলীগের সভাপতি এস,এম লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, যুবলীগনেতা নিশাত কবির, ছাত্রলীগনেতা মাহবুর, সানজিদা জেরিনসহ উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা।

আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করে মোনাজাত এবং উপস্থিতিদের মাঝে গণভোজের খাদ্য বিতরণ হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category