শিরোনাম
বিশ্বম্ভরপুরের সিরাজপুর বাগগাওঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শোক দিবস পালন জগন্নাথপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগ জাতীয় শোক দিবস পালিত ঘাটাইল বঙ্গবন্ধুর ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস গোলাপগঞ্জে মডেল প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের এর পরিচালনা কমিটির ১ম মিটিং অনুষ্ঠিত হয় দেশের দিশেহারা মানুষ আবারও জাতীয় পার্টির সুশাসন ফিরে পেতে চায় আশিক আহমেদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আলোচনা সভা জুড়ীতে চা শ্রমিকদের ধর্মঘট পালন শোক সংবাদ বানারীপাড়ায় জমিসংক্রাস্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় হিমোফিলিয়া রোগে আক্রান্ত সজিবের অবস্থা গুরুত্বর মৌলভীবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর বিক্ষোভ মিছিল
সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১০:০৬ অপরাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

ছাতকে পল্লী বিদ্যুতের নামের সাথেই ঘুষ বাণিজ্যের বিষয়টি যেন সংযুক্ত।।

Coder Boss / ১১৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২ মে, ২০২১

সেলিম মাহবুব,ছাতকঃ
ছাতকে পল্লী বিদ্যুতের নামের সাথেই যেন ঘুষ বাণিজ্যের বিষয়টি একাকার হয়ে গেছে। এখানে বিদ্যুতের সরকারি ফি জমা দিলেও ঘুষ ছাড়া কিছুই হচ্ছে না। এতে গ্রাহক হয়রানি চরম আকার ধারণ করছে। ছাতকে পল্লী বিদ্যুতের নতুন সংযোগ, ঝুঁকিপূর্ণ বৈদ্যুতিক খুঁটি, লাইন অপসারণ, মিটার বিকল, মিটার পরিবর্তন, লোড বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন সেবায় গ্রাহক ভোগান্তি চরমে পৌছে গেছে। সরকারি যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে নির্ধারিত ফি জমা দিয়েও ঘুষ না দিলে গ্রাহকদের দিনের পর দিন হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। এ যেন পল্লী বিদ্যুৎ আর ঘুষ এখানে একাকার হয়ে পড়েছে। সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গোবিন্দগঞ্জ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মনিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে এসব ঘুষ দূর্নীতির অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা। উপজেলার তকিপুর গ্রামের বাসিন্দা হাফিজ আব্দুল হাই একটি নতুন বিদ্যুৎ খুঁটির জন্য আবেদন করেন। ওই কারনে তিনি নির্ধারিত ফি ও জমা দিয়েছেন। কিন্তু এখানে সমস্যা একটাই ওই গ্রাহক ঘুষ দিতে নারাজ। এ কারণে তিনি এখনো সেবা থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার বরাবরেও একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে। এদিকে ছৈলা আফজালাবাদ ইউনিয়নের দিঘলী রামপুর গ্রামে একটি ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুৎ খুঁটি অপসারণের জন্য গ্রামবাসীর পক্ষে যথাযথ নিয়ম মেনে আবেদন করলেও কোনো প্রতিকার পাচ্ছেন না তারা। এছাড়া ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল, মিটার রিডিং না দেখে অতিরিক্ত বিল, গ্রাহকদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ এখানে নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঘুষ দূর্নীতির বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমকে অবহিত করেছেন উপজেলার শ’শ পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহকরা। অনেক ক্ষেত্রে সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক সুয়েবুর রহমানের সুপারিশকেও অগ্রাহ্য করে অনিয়ম দুর্নীতির সম্রাজ্য গড়ে তোলা হয়েছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এ শাখায়। এব্যাপারে সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গোবিন্দগঞ্জ জোনাল অফিসের ডিজিএম মনিরুল ইসলাম গ্রাহক হয়রানিসহ তার বিরুদ্ধে আনীত এসব অভিযোগ সত্য নয় বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন