শিরোনাম
পদ্মাসেতুর উদ্বোধনস্থলে হবিগঞ্জের তিন জনপ্রতিনিধি সাতক্ষীরা তালায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৩ ডাকাত গ্রেফতার বালাগঞ্জে খেলাফত মজলিসের ত্রাণ বিতরণ। ঘাটাইল উপজেলায় আওয়ামীলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ওসমানীনগর উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি,নিশ্চুপ জনপ্রতিনিধিরা শেরপুর প্রেসক্লাবে(মৌলভীবাজার)এর বন্যার্তদের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরন সিলেট কোম্পানিগঞ্জে বন্যা দুর্গতদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করছেন সন্ধানী জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ইউনিট এর নেতৃবৃন্দ বন্যায় দুর্গতদের পাশে ‘তালামীযে ইসলামিয়া’। বানিয়াচঙ্গে বানভাসিদের মাঝে ‘বাসদ’ ও ‘উদীচী’র ত্রাণ বিতরণ। আওয়ামী লীগ সব সময় জনগণের পাশে আছে, এটি অব্যাহত থাকবে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০১:১৯ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

ধর্মপাশায় সরকারি দুটি খাদ্য গুদামে বরাদ্দ ৫১১১টন ধান,দেড় মাসে সংগ্রহ ৭০৫টন

Coder Boss / ৪৫৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৫ জুলাই, ২০২০

লিপু মজুমদার ধরমপাশা প্রতিনিধি।। সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় উপজেলার মধ্যনগর ও ধরমপাশা এই দুটি সরকারি খাদ্য গুদামে সরকারি ন্যায্যমুল্যে কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ কার্যক্রম চলছে ধীর গতিতে। এই দুটি গুদামে গত দেড় মাসে সংগ্রহ করা হয়েছে মাত্র ৭০৫টন। হাটবাজারগুলোতে কৃষকেরা ধানের ভালো দাম পাওয়ায় খাদ্য গুদামে ধান নিয়ে আসতে তারা আগ্রহ দেখাচ্ছেন না। এতে করে ধান সংগ্রহ কার্যক্রমে লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মধ্যনগর খাদ্যগুদামে দুই হাজার ৬০২টন ও ধরমপাশা খাদ্য গুদামে দুই হাজার ৫০৯টন ধান সংগ্রহ করার জন্য সিদান্ত হয়।

প্রতি কেজি ধান ২৬টাকা ও প্রতিমণ ধান এক হাজার ৪০টাকা দামে উন্মুক্ত লটারিতে বিজয়ী তালিকাভুক্ত প্রত্যেক কৃষক সর্বোচ্চ এক টন করে ধান বিক্রয় করতে পারবেন। চলতি বছরের ২০মে থেকে ওই দুটি খাদ্য গুদামে ধান সংগ্রহ শুরু হয় এবং তা চলবে ৩১আগস্ট পর্যন্ত। গতকাল শনিবার পর্যন্ত উপজেলার মধ্যনগর খাদ্য গুদামে ৫৫৫ টন ও ধরমপাশা খাদ্য গুদামে১৫০টন ধান সংগ্রহ করা হয়েছে। উপজেলার মধ্যনগর বাজারের বাসিন্দা কৃষক আলাল উদ্দিন বলেন,এক রোদে ধান শুকিয়ে বাজারে ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতিমণ ধান ৯৪০থেকে ৯৬৫টাকা দামে কৃষকেরা সহজেই বিক্রি করতে পারছেন। খাদ্য গুদামে এই ধান বিক্রি করতে হলে তিনবার রোদে শুকাতে হতো। গুদামে ধান নিয়ে গেলে শ্রমিক খরচসহ আরও নানাদিক দেখতে হয়। বাজারে দাম ভালো পাওয়ায় গুদামে ধান বিক্রিতে এখানকার কৃষকদের তেমন আগ্রহ দেখা যাচ্ছে না। উপজেলার মধ্যনগর বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মধ্যনগর ধান চাল আড়ত কল্যাণ সমিতির সভাপতি মো.জহিরুল হক বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রভাবে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ধানের দাম বেড়েছে।তাছাড়া বাজারে চালের দামও কিছুটা বেশি। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা রহস্যজনক কারণে হাট বাজারে ধানের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।

ফলে কৃষকেরা খাদ্য গুদামে ধান বিক্রি না করে তা হাট বাজারের ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করছেন। ধর্মপাশা খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসিএলএসডি) সুজন রায় ও মধ্যনগর খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসিএলএসডি) অবিনাশ দাস বলেন,এ উপজেলার হাটবাজারগুলোতে ধানের দাম ভালো পাওয়া কৃষকেরা এই দুটি খাদ্য গুদামে সরকারি নির্ধারিত মুল্যে ধান বিক্রি করা নিয়ে তাঁদের তেমন আগ্রহ নেই। এ অবস্থায় ধান সংগ্রহের লক্ষমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তবে আমরা সর্বরকম চেষ্ঠা করছি।বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ অবহিত রয়েছেন। ধর্মপাশা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা তাহিরপুর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বি. এম মুশফিকুর রহমান বলেন, হাটবাজারগুলোতে তুলনামুলক ধানের দাম কিছুটা বেশি। পরিবহন খরচ বেশি হওয়ার কারণে একটন করে ধান গুদামে নিয়ে আসার জন্য কৃষকেরা তেমন আগ্রহ দেখাচ্ছেন না।

তাই সম্প্রতি জেলা প্রশাসক মহোদয়ের মৌখিক নির্দেশে তালিকাভুক্ত প্রত্যক কৃষক সর্বোচ্চ তিনটন করে ধান গুদামে বিক্রি করতে পারবেন। ১জুলাই থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ইউএনও স্যারের সঙ্গে কথা বলেছি।এ অবস্থায় ধান সংগ্রহের গতি ফিরে আসবে বলে আশা করছি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো.মুনতাসির হাসান বলেন, লটারিতে বিজয়ী তালিকাভুক্ত প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে সরকারি নির্ধারিত মুল্যে ধান ক্রয় করে এ উপজেলায় ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। খুব শিগগিরই এ নিয়ে সভা ডাকা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন