আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সময় : সকাল ৭:০৯

বার : বৃহস্পতিবার

ঋতু : শরৎকাল

বিশ্বম্ভরপুরের ধনপুর থেকে তরংগীয়ার  রাস্তার বেহাল দশা, যেন দেখার কেউ নেই, দুর্ভোগে এলাকাবাসী

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর  ইউনিয়নের তরংগীয়া পয়েন্ট হতে ধনপুর বাজার পর্যন্ত  যাওয়ার রাস্তাটি বেহাল দশা, ফলে দুর্ভোগে এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে এলাকাবাসীর পক্ষে  গতকাল  বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর ইউনিয়নের   ধনপুর আছমত আলী পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উনার ফেসবুকে রাস্তানিয়ে লিখেন বিশ্বম্ভরপুরের ধনপুর থেকে তরংগীয়ার  রাস্তার বেহাল দশা, যেন দেখার কেউ নেই, দুর্ভোগে এলাকাবাসী

“” সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর ইউনিয়নের তরংগীয়া পয়েন্ট থেকে ধনপুর আছমত আলী সাহেবের বাড়ি পর্যন্ত। ঐ গ্রামের রাস্তটির বেহাল অবস্থা ও চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণেই রাস্তাটির বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়ে যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। রাস্তাটি সংস্কার না করায় এলাকার জনসাধারণ ও গাড়ি চলাচলে ব্যাপক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। রাস্তার রড ওঠে থাকার কারনে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার সম্মুখীন হচ্ছে।

সামান্য বৃষ্টি হলেই প্রচন্ড জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় সড়কটিতে। এরই মধ্যে ব্লক ভেঙে ছোটখাট কুয়ায় পরিণত হয়েছে সড়কটির বেশ কয়েকটি অংশ। ফলে এর বেশ কিছু অংশই এখন চলাচলের উপযোগী নয়। সড়কটি এখন যেন মরণফাঁদ। রাস্তার অনেক জায়গায় ব্লক সলিং উঠে গিয়ে ছোট-খাটো গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহনগুলোকে চলতে হচ্ছে হেলেদোলে।

বিশ্বম্ভরপুরের ধনপুর থেকে তরংগীয়ার  রাস্তার বেহাল দশা, যেন দেখার কেউ নেই, দুর্ভোগে এলাকাবাসী
এই রাস্তাটি দিয়ে মিনি ট্রাক, পিকআপ, সিএনজি, অটোরিক্সাসহ বিভিন্ন ধরনের শতাধিক যানবাহন নিয়ে প্রতিদিন প্রায় পাঁচ শতাধিক স্কুল কলেজে পড়য়া শিক্ষার্থীসহ হাজার হাজার লোকজন গ্রাম থেকে ধনপুর বাজার হয়ে সুনামগঞ্জ শহরে যাতায়াত করে। মেরামতের অভাবে এ গ্রামের রাস্তাটি থেকে ধনপুর আছমত আলী পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় ও ধনপুর বাজার পর্যন্ত প্রায় দেড় (১. ৫) কিলোমিটার রাস্তার বিভিন্ন স্থানে খানা খন্দের কারণে সাধারণ মানুষের চলাচলে চরম দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তাটির বেহাল অবস্থার কারণেও চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়ায় প্রায় প্রতিদিন কোনো না কোনো যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। রাস্তাটিতে অসংখ্য খানা-খন্দে ভরে গেছে এবং উঠে গেছে ব্লক সলিং। এছাড়া ছোট বড় মিলে রাস্তাটিতে প্রায় পাঁচ শতাধিক গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে বিভিন্ন যানবাহন এসব গর্তে পড়ে দুর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। রাস্তা ভাঙ্গার কারণে দুর্ভোগে ভোগছেন হাজার হাজার মানুষ। বিকল্প সড়ক না থাকায় দুর্ভোগ সহ্য করে প্রতিদিন এ রাস্তায় চলাচল করছেন এ গ্রামের লোকজন। অতিদ্রুত রাস্তাটি পুনর্নিমাণ বা সংস্কার করার দাবি এলাকাবাসীর।

এলাকাবাসীরা জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও জনপ্রতিনিধিদের জানানোর পরেও দীর্ঘ দিন অপেক্ষার পরেও কোন কাজ হচ্ছে না। সকলের দাবী অতি শ্রীঘ্রই যেন এই রাস্তাটির সংস্কার করা হই, সে জন্য কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি।””” এখানে অনেকে মন্তব্য করেছেন।

এবিষয়ে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর  ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও সমাজ সেবক, তরুণপ্রজন্মের জাগ্রত বিবেক, বিশ্বম্ভরপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ শাহ আলম বলেন আমরা এই রাস্তা সংস্করণের জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান কেও বলেছি। আরও দুঃখের বিষয়  সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ হারুনুর রশিদ দুলাল উনার বাড়ি থেকে উপজেলা সদরে যাওয়ার এক মাত্র রাস্তা এটা। এই রাস্তায় প্রতিদিন এই ঘটছে দুর্ঘটনা। এ যেন নিত্য দিনের সঙ্গী হয়ে দাড়িয়েছে। চিনের দুঃখ হংকং নদী, ধনপুর বাসীর দুঃখ যেন  তরংগীয়ার রাস্তা।

ধনপুর ইউনিয়নের  বর্তমান চেয়ারম্যান হযরত আলী সোহেল কালাচাঁন বলেন উক্ত রাস্তাটি আমি প্রায় ২০ বছর আগে করেছিলাম তার পর থেকে কোন প্রকার মেরামত করা হয়নি। নতুন বাজেট পেলে নতুন করে কাজ শুরু করবো। আমি উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার জানিয়েছি। দ্রুতই কাজ হবে বলে আমি মনে করি।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান সফর উদ্দিন বলেন আমি জেলার মিটিং এ বিষয়ে উপস্থাপন করেছি  এবং দ্রুত কাজ করার জন্য চেষ্টা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category