শিরোনাম
পদ্মাসেতুর উদ্বোধনস্থলে হবিগঞ্জের তিন জনপ্রতিনিধি সাতক্ষীরা তালায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৩ ডাকাত গ্রেফতার বালাগঞ্জে খেলাফত মজলিসের ত্রাণ বিতরণ। ঘাটাইল উপজেলায় আওয়ামীলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ওসমানীনগর উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি,নিশ্চুপ জনপ্রতিনিধিরা শেরপুর প্রেসক্লাবে(মৌলভীবাজার)এর বন্যার্তদের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরন সিলেট কোম্পানিগঞ্জে বন্যা দুর্গতদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করছেন সন্ধানী জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ইউনিট এর নেতৃবৃন্দ বন্যায় দুর্গতদের পাশে ‘তালামীযে ইসলামিয়া’। বানিয়াচঙ্গে বানভাসিদের মাঝে ‘বাসদ’ ও ‘উদীচী’র ত্রাণ বিতরণ। আওয়ামী লীগ সব সময় জনগণের পাশে আছে, এটি অব্যাহত থাকবে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০১:৩১ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

হবিগঞ্জের লাখাইয়ে মুছে যাচ্ছে দত্ত বাড়ির ইতিহাস

Coder Boss / ৩২০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০

 

হবিগঞ্জ বিশেষ প্রতিনিধি ঃ

হবিগঞ্জের লাখাই ঐতিহাসিক দত্ত বাড়ী,
লাখাইয়ের স্বজনগ্রাম,টাউনশীপ,
১। ভারতবর্ষের স্পীকার ও লাখাই থানার প্রতিষ্টাতা রায়বাহাদুর এডভোকেট সতীশ চন্দ্র দত্ত।
২। বঙ্গবন্ধুর শিক্ষক প্রফেসর ডঃ ভবতোষ দত্ত।
৩। ভারতের কেন্দ্রীয় আইনসভার সদস্য শ্রীস চন্দ্র দত্ত।
৪। আসাম পার্লামেন্টের মেম্বার রায়বাহাদুর এডভোকেট হেমচন্দ্র দত্ত।
৫। ভারতের পার্লামেন্টের মেম্বার জ্যোৎস্না রানী দত্ত।
৬। ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক কমরেড বারীন দত্ত।
৭। ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক নারী নেত্রী হেনা দাশ।
৮। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্যারাকমান্ডো অফিসার কর্ণেল অশোক কুমার দত্ত।
৯। পুলিশের এডিশনাল আইজি দেবী দত্ত।
১০। পুলিশের ডি আই জি সুধীর চন্দ্র দত্ত।
১১। সিলেট বিভাগের প্রথম FRCS ডাক্তার নরেশ চন্দ্র দত্ত।
১২। ডাঃ পরেশ চন্দ্র দত্ত।
১৩। স্বরাষ্ট সচিব বীরেশ চন্দ্র দত্ত।
১৪। আইন সচিব নির্মল চন্দ্র দত্ত।
১৫। বিজ্ঞানী ডঃ রনজিত কুমার দত্ত।

বৃটিশ আমলে ভাররবর্ষের পশ্চিমবাংলা, পুর্ব বাংলা, আসামের আলোকিত ও শিক্ষিত বংশ ছিল লাখাই ঐতিহাসিক দত্ত বংশ।সেই সময় ১২০ জন ছিলেন লাখাই দত্ত বংশে উচ্চ পর্যায়ের অফিসার। দত্ত বংশের লোকেরা সিলেট, শিলচর,কলকাতা,দিল্লী,লন্ডন,আমেরিকায় বসবাস করতেন।দুর্গাপুজার সময় লাখাই এসে সবাই মিলিত হতেন।
১৯৪৭ সালে ভারত পাকিস্তান ভাগ হলে দত্ত বংশের লোকেরা পাকিস্তান ত্যাগ করে। ১৯৫৮ সালে আইয়ুব খানের সামরিক শাসনের সময় বাকীরা দেশ ত্যাগ করে।

১৯৬০ সালে প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খান টাউনশীপ প্রকল্প বাস্তবায়ন লাখাই ঐতিহাসিক দত্ত বাড়ীতে লাখাই থানা সদর দপ্তর প্রতিষ্টিত হয়।

১৯৮৩ সালের ১৫ এপ্রিল লাখাই থানা সদর দপ্তর কালাউকে প্রতিষ্টিত হলে লাখাই দত্ত বাড়ী অকেজো হয়ে পড়ে। লাখাই থানার প্রশাসন টিএনও এর অধীনে চলে।
লাখাই দত্ত বাড়ী থেকে চারজন এমপি হয়েছেন।ভারতবর্ষের স্পীকার হয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর শিক্ষক প্রফেসর ডঃ ভবতোষ দত্ত এই বাড়ীর সন্তান।

ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক কমরেড বারীন দত্ত,নারী নেত্রী হেনা দাশ,মুক্তিযোদ্ধা কর্ণেল অশোক কুমার দত্ত,বিজ্ঞানী ডঃ রনজিৎ দত্তেত স্মৃতি বিজড়িত এই বাড়ী।
মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত লাখাই দত্ত বাড়ীটি উদ্ধার করে ” লাখাই ঐতিহাসিক দত্ত বংশের স্মৃতি যাদুঘর” প্রতিষ্ঠা করা দরকার।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন