শিরোনাম
সিবিসাস’-এর পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে কুলাউড়ার দুই কৃতি সন্তান ‘সেলিম ও খলিল’। বাহুবলে এড: মো: আলমগীর চৌধুরী’র শীতবস্ত্র বিতরণ। ত্রিশটি মামলায় ২৮৩ ওয়ারেন্ট নিষ্পত্তি করেছে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ। দোয়ারাবাজারে আশ্রয়ন প্রকল্পের প্রতি ঘরে গিয়ে কম্বল বিতরণ জগন্নাথপুরে পৃথক অভিযানে ১৮২৯ পিচ ইয়াবা সহ বিপুল পরিমাণ গাঁজা উদ্ধার গ্রেফতার ৩ শ্রীমঙ্গলে আনসার ভিডিপি প্রশিক্ষককে বদলীজনিত বিদায়ী সংবর্ধনা। তাড়াইলে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ইমাম সম্মেলন অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সভাপতি ‘বিশ্বজ্যোতি’ ও সম্পাদক ‘সোহেল’ নির্বাচিত। দোয়ারাবাজারে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষে আহত ৬। মৌলভীবাজারে “সিএমএফ”-এর উদ্যোগে শীত বস্ত্র বিতরণ।
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

৬৫ তম প্রশাসনিক জেলার দাবীতে আব্দুল বাছিত বাচ্চু’র খোলা চিঠি

Coder Boss / ৪২৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৩ জুলাই, ২০২১

সত্যজিৎ দাস,সংবাদ প্রতিনিধি।

গত দেড় বছর ধরে মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার ১০ নং হাজীপুর ইউপির সুনামধন্য, সিরাজুদ্দৌলা পদকপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু সিলেটের কুলাউড়া,জুড়ি, বড়লেখা,শমশেরনগর এই চারটি বৃহৎ ও সবুঝে ঘেরা নৈসর্গিক সৌন্দর্যে ভরা এলাকা নিয়ে ৬৫ তম প্রশাসনিক জেলা গঠনের দাবীতে নানা কর্মকাণ্ড অব্যাহত রেখেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় এইবার কুলাউড়ার সিরাজুদ্দৌলা মাননীয় মন্ত্রী জনাব শাহাবুদ্দিন এমপির উদ্দেশ্যে একটি খোলা চিঠি লিখেছেন। মোহাম্মদ আব্দুল বাছিত বাচ্চু তাঁর নিজের ফেসবুক আইডি থেকে গতকাল ২২ জুলাই রোজ বৃহস্পতিবার এই খোলা চিঠিটি পোস্ট করেন। পাঠকবৃন্দের সুবিধার্থে খোলা চিঠিটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

” একটি খোলা চিঠি

জনাব মো. শাহাবুদ্দিন আহমদ এমপি
মাননীয় মন্ত্রী,
বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়
বাংলাদেশ সচিবালয়,ঢাকা।

বিষয়ঃ- কুলাউড়াকে হেডকোয়ার্টার করে যেকোনো নামে কুলাউড়া,জুড়ী,বড়লেখা ও শমসেরনগর এলাকা নিয়ে দেশের ৬৫ তম প্রশাসনিক জেলা গঠন প্রসঙ্গে।

মাননীয় মন্ত্রী,
আসসালামু আলাইকুম। ঈদ মোবারক। নিশ্চয়ই আপনি ভালো আছেন। আমরাও আল্লাহর রহমতে এবং আপনার নেক দোয়ার বরকতে আছি, আলহামদুলিল্লাহ।
মাননীয় মন্ত্রী, আপনি একজন তৃণমূল রাজনীতিবিদ। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান থেকে আল্লাহ আপনাকে আজ দেশের পূর্ণ মন্ত্রীর মর্যাদা দিয়েছেন যা খুব কম লোকের ভাগ্যে জুটে । শুধু আপনার শ্রম মেধা রাজনৈতিক বিচক্ষণতা আর মা বাবা ও পীর আউলিয়ার নেক দোয়ার বরকতে সেটা সম্ভব হয়েছে বলে আমার ধারণা।
মাননীয় মন্ত্রী, আজ হয়তো ব্যক্তিগতভাবে আপনি আমাকে নাও চিনতে পারেন। কিন্তু একজন ক্ষুদ্র সংবাদকর্মী হিসেবে একসময় আপনার রাজনৈতিক জীবনের উত্থান পতনের সব খবরই আমি রাখতাম।মানুষের ভালো সময়ে আমি বিরক্ত করি না সেটা আমার পুরনো অভ্যাস। তাই সবসময় আপনার কাছে আমার যাওয়া হয় না। আজ এই খোলা চিঠির মাধ্যমে আপনার দ্বারস্থ হচ্ছি এমন একটা বিষয় নিয়ে,যা আপনার আমার তথা গোটা পূর্বাঞ্চলের মানুষের গণদাবি।
মাননীয় মন্ত্রী,আপনি জানেন প্রাকৃতিক ও নৈসর্গিক সৌন্দর্যের অপুর্ব লীলাভুমি আমাদের এই অবহেলিত পূর্বাঞ্চল। এশিয়ার বৃহৎ হাকালুকি হাওর,শমসেরনগর বিমানবন্দর, পৃথিমপাশা নবাববাড়ি,পুবের কালা পাহাড়,মুড়াই ছড়া ইকোপার্ক,মাধকুন্ড ও হাম হাম জলপ্রপাত,কুলাউড়া রেলওয়ে জংশন,এমনকি পাহাড়ের পাদদেশে শতাধিক আদিবাসী ও মনিপুরী পল্লী,অর্ধশতাধিক চা বাগান এই এলাকার সৌন্দর্যকে আরও অনেকেগুন বাড়িয়ে দিয়েছে। যা দেখতে দেশ বিদেশের পর্যটকরা রাত পোহালেই ছুটে আসেন এই এলাকায়। কিন্তু এই এলাকায় প্রয়োজনীয় হোটেল মোটেল সহ অবকাঠামো গড়ে না উঠায় প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিদে না পেয়ে তারা একসময় মুখ ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হন।বিশেষ করে মৌলভীবাজার জেলা সদরে থেকে এই এলাকায় ভ্রমণ পর্যটকদের জন্য অনেক ব্যয়বহুল এবং বিরক্তিকরও বটে। অথচ কুলাউড়ায় থেকে একজন পর্যটক অতি সহজে এবং কম সময়ে কম খরচে পুরো জেলা এমনকি দেশ ভ্রমণ করতে পারে। এমনকি আমাদের দাসেরবাজার,শাহবাজপুর, বটুলী,ফুলতলা সহ প্রত্যন্ত এলাকার লাখো মানুষের সরকারি সেবা পাওয়ার ভোগান্তি কমে যাবে।
মাননীয় মন্ত্রী,আপনি জানেন দেশের মাগুরা,পঞ্চগড়, রাজবাড়ীসহ অনেক জেলার আয়তন,রাজস্ব আয়,জনসংখ্যা আমাদের কুলাউড়া বড়লেখা জুড়ীর চেয়ে কম।এমতাবস্থায় কুলাউড়া,জুড়ী,বড়লেখা শমসেরনগর সহ এই এলাকা নিয়ে পৃথক একটি প্রশাসনিক জেলা হলে যেমন শিক্ষা স্বাস্থ্য যোগাযোগ সহ অবকাঠামো খাতে এই এলাকা ১০০ বছর এগিয়ে যেতে পারে ঠিক তেমনি সরকারের রাজস্ব আয় কয়েকগুণ বেড়ে যেতে পারে।আর এই দাবি বাস্তবায়ন এখন আপনার পক্ষেই সম্ভব। কারণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আপনাকে অনেক বেশি আদর,স্নেহ ও বিশ্বাস করেন। আমার বিশ্বাস আপনি এই প্রস্তাব দিলে অবশ্যই তিনি তা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করবেন। আর এই দাবি বাস্তাবায়িত হলে প্রয়াত মন্ত্রী এম সাইফুর রহমান যেভাবে সিলেট বিভাগ এবং স্পীকার হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় করে সিলেটবাসীর মন জয় করে নিয়েছেন। আপনি অনুরূপভাবে কুলাউড়া জুড়ী বড়লেখার মানুষের মনের মনিকোঠায় চির অমর হয়ে থাকবেন।
পরিশেষে অনেক বিরক্ত করায় ক্ষমা চেয়ে আপনার সুস্বাস্থ্য ও মঙ্গল কামনা করে বিদায় নিচ্ছি।
আল্লাহ হাফেজ।
আপনার গুনমুগ্ধ,
সাংবাদিক আব্দুল বাছিত বাচ্চু
আহবায়ক ও প্রস্তাবক(৬৫ তম প্রশাসনিক জেলা বাস্তবায়ন পরিষদ) ও চেয়ারম্যান,হাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদ,কুলাউড়া।) “।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

বিভাগের খবর দেখুন