শিরোনাম
তাহিরপুরে অগ্নিকাণ্ডে ৩৫টি মিটার পুড়ে ছাই সাতক্ষীরায় প্রতিবন্ধী মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় সম্মেলন-২০২২ অনুষ্ঠিত দয়ামীরে সন্তাসী হামলায় স্বীকার এক বৃদ্ধ! আসন্ন চরজুবলী ইউপি নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডে মেম্বার প্রার্থী বেলাল হোসেনের উঠান বৈঠক আদর্শ ছাত্র ও যুব সমাজ এর পক্ষ থেকে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ, ২০২২ইং সাতক্ষীরায় বীর মুক্তিযোদ্ধা এমপি রবির পক্ষ থেকে অন্ধ, ভূমিহীন ও ছিন্নমুল মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ বানিয়াচংয়ে মেছো বিড়ালের চারটি ছানা উদ্ধার করে ফিরিয়ে দেওয়া হলো মা বিড়ালের কাছে নৌকায় ভোট দিলে উন্নয়ন হয় ; মোস্তাকুর রহমান মফুর খলিলপুর ইউনিয়ন পরিষদে প্রবাসীদের সংবর্ধনা
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৪২ পূর্বাহ্ন
Notice :
Wellcome to our website...

সাতক্ষীরায় বিশ্ব এইডস দিবস পালন

Coder Boss / ৩৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১

 

শেখ অাবুমুছা সাতক্ষীরা:

অর্জিত বা-অভাবজনিত রোগের লক্ষণ সমষ্টি হচ্ছে এইচআইভি তথা মানব “অনাক্রম্য অভাব সৃষ্টিকারী ভাইরাস” নামক ভাইরাসের কারনে সৃষ্ট একটি রোগলক্ষণের সমষ্টি, যা মানুষের দেহে রোগ-প্রতিরোগের ক্ষমতা তথা অনাক্রম্যতা হ্রাস করে। এর ফলে একজন এইডস রোগী খুব সহজেই যে কোন সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হতে পারেন, যা শেষ পর্যন্ত তার মৃত্যু ঘটাতে পারে। “সমতার বাংলাদেশ এইডস ও অতিমারী হবে শেষ” এই প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে ১ ডিসেম্বর বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে বুধবার সকাল ১০ টায় সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে এবং জাতীয় এইডস/এসটিডি কন্ট্রোল প্রোগ্রাম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহযোগীতায় কর্মসূচীতে অংশগ্রহন করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়, আইসিডিডিআরবি, সদর হাসপাতাল, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব, উন্নয়ন সংগঠন লাইট হাউজ, বরসা, স্বদেশ, সুশীলন, প্রভা, উত্তরণ ও নারী মুক্তি সংঘ। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষ্যে সিভিল সার্জন ডাঃ হুসাইন সাফায়াতের নের্তত্বে এক র‌্যালী সদর হাসপাতাল চত্তরে অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালী পরিবর্ততে হাসপাতাল অভ্যন্তরে স্থাপিত সিভিল সার্জন অফিস, লাইট হাউজ ও নারী মুক্তি সংঘের ষ্টল পরিদর্শন করেন সিভিল সার্জন ডাঃ হুসাইন সাফায়াত। পরবর্তিতে সিভিল সার্জন সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার পুলক চক্রবর্তীর সঞ্চালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন সিভিল সার্জন ডাঃ হুসাইন সাফায়াত। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি মমতাজ আহমেদ বাপী। সভার শুরুতেই পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মেডিকেল অফিসার ডাঃ আমানত উল্লাহ। তিনি বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাপী এইডস এর বর্তমান পরিস্থিতি তুলে ধরেন। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আহমেদ আল মারুফ, স্বদেশের নির্বাহী পরিচালক মাধব চন্দ্র দত্ত, বরসা’র সহকারী পরিচালক মোঃ নাজমুল আলম মুন্না, লাইট হাউজ সাব ডিআইসি ইনচার্জ মোঃ সঞ্জু মিয়া, নারী মুক্তি সংঘের ম্যানেজার মোঃ রায়হান নেছার প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের হেল্থ এডুকেটর শেখ মুরাদ হোসেন, সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু হেনা মোস্তফা কামাল, সুশীলনের সহকারী পরিচালক জিএম মনিরুজ্জামানসহ শতাধিক হিজড়াগণ। প্রধান অতিথি সিভিল সার্জন বলেন সর্বপ্রথমে আমাদের এইডস সম্পর্কে জানতে হবে এবং সবাইকে জানাতে হবে। এ জন্য সরকারী ও বেসরকারী ভাবে অনেক বেশী প্রচার প্রচারণার ব্যবস্থা করতে হবে। মরণঘাতী এইডস দুই দশক আগে সনাক্ত হয়েছে তবুও তার কোন টিকা আজও বের হয়নি। তিনি অনুরোধ করে বলেন যারা বা যে সমস্ত সংগঠন মরণব্যাধী এইডস প্রতিরোধে কাজ করছে তাদেরকে এইডস এর ভয়াবহতা সম্পের্কে সাধারন জনগণকে অবগত করার জন্য শহরে এবং শহরের বাইরের প্রত্যন্ত এলাকায় বেশী বেশী প্রচার প্রচারণা চালাতে হবে। সীমান্তবর্তী জেলা সাতক্ষীরা হওয়ার ফলে এই এলাকার মানুষ অনেক বেশী এইডস এর ঝুকিতে রয়েছে। এইডস যদি একবার হয় তাহলে সেটা মানুষের শরীরে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা চিরতরে হারিয়ে ফেলে, যার ফলে তার মৃত্যু নিশ্চিত। এছাড়া যতদিন সে বাচবে সামাজিকভাবে তাকে হেও প্রতিপন্ন, ঘৃনা এবং অবহেলার পাত্র হতে হয়ে বেচে থাকতে হয়। এইডস্ রোগে আক্রান্ত হবার আগে বা কাউকে সন্দেহ হলে তাকে অবশ্যই পরিক্ষা করানো দরকার এক্ষেত্রে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে এইডস পরিক্ষার সুব্যবস্থা রয়েছে। অজান্তেই একজন ইনোসেন্ট ব্যক্তি বিশেষ করে নারী বা মেয়েরা এই রোগে আক্রান্ত হতে পারে কারণ যে সকল ব্যক্তিরা নিয়মিত বিদেশ ভ্রমন করে বা এইচআইভি ভাইরাস বহন করে তাদের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবব্ধ হলে, এইচআইভি পজেটিভ ব্যক্তির সাথে একই সিরিঞ্জ ব্যবহার করে মাদকদ্রব্য নিলে বা আক্রান্ত মায়ের কাছ থেকে দুধপানে শিশুরাও এই রোগে আক্রান্ত হতে পারে। অতএব আমরা যারা সুস্থ্য-সুন্দর জীবন চাই তারা আরও বেশী সচেতন হই এবং অন্যদেরকে সচেতন করি এবং নিরাপদ জীবনের জন্য অনিরাপদ যৌনমিলন থেকে সরে আসার আহবান জানিয়ে তিনি আরও বলেন যারা এইডস্ রোগে আক্রান্ত হয়েছে তাদের জীবন খুবই দুর্বিসহ যন্ত্রনা দায়ক এবং সম্মানহানীর কারন হয়ে দাড়ায়। তবে এই রোগে আক্রান্ত ৯০ ভাগ রোগীকে প্রকৃত স্বাস্থ্যসেবা ও সুচিকিৎসায় অনেকটা নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব। এইড্স রোগে যারা সবচেয়ে ঝুকিতে রয়েছে তারা হলো-যৌন পল্লীতে অবস্থানকারী যৌনকর্মী, ভাসমান যৌনকর্মী, বাসাবাড়ীতে এবং হোটেলে অবস্থানকারী যৌনকর্মী, শিরায় ও মুখে মাদক গ্রহনকারী, পুরুষ যৌনকর্মী, হিজড়া এবং যৌনকর্মীদের খদ্দের।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Registration Form

[user_registration_form id=”154″]

পুরাতন সংবাদ দেখুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

বিভাগের খবর দেখুন