আজ ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সময় : রাত ৩:০৬

বার : শুক্রবার

ঋতু : গ্রীষ্মকাল

বিশ্বনাথ টু কুরুয়া বাজার রাস্তার করুণ দশায় বিপাকে দুই উপজেলাবাসী

রাজা মিয়া, বিশ্বনাথ

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা সদর থেকে আর এইচ ডি কুরুয়া বাজার রাস্তার করুণ দশায় বিপাকে পড়েছেন দুই উপজেলার বাসিন্দারা,বিশ্বনাথ উপজেলা সদর থেকে কুরুয়া বাজার রাস্তাটি দশমাইল পয়েন্ট হয়ে ঢাকা সিলেট মহাসড়কে মিলিত হয়েছে,রাস্তাটি প্রায় ২.৫ কিলোমিটার কয়েক ধাপে পাকাকরণ হলেও অবশিষ্ট ৫০০ মিটার রাস্তা সদর ইউনিয়নের শ্বাসরাম গ্রামের বাসিন্দা ডাক্তার শামসুল হকের বাড়ির পূর্ব পাশে ৫০০ মিটার রাস্তা পাকাকরণ না হওয়ায় বৃষ্টির দিনে বিশ্বনাথ ওসমানী নগরের মানুষের দুর্দশার শেষ থাকে না।

রাস্তাটি মূলত ১৯৬৫ সালে জেনারেল আতাউল গনি ওসমানী সাহেবের বাবা মাটি কাটার মধ্যে দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলেন,২০০১ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত দুই মেয়াদে পাকাকরণ হলেও অবশিষ্ট ৫০০ মিটার রাস্তার জন্য আটকে পরে যোগাযোগ ব্যবসহা,তাছাড়া পাকা অংশ মেরামত না করায় শুরু হয় বড় বড় গর্ত,নির্মান কাজ হালকা হওয়ায় তড়িৎ গতিতে ভেঙে পড়ে সড়কটি,বাকি ৫০০ মিটার রাস্তা কাচা থাকা পরেও পাকা অংশে ছোট বড় মিলে হাজার খানেক গর্ত করে দিয়েছে চলাচল অনুপযোগী,স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছেলে মেয়ে সহ রোগী সাধারণ পথচারী,ও যানবাহন চলাচলের জন্য ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে এ সড়কটি।

গত কয়েক দিন যাবত এ নিয়ে এলাকার বাসিন্দা অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে লেখা লেখি করতে দেখা যায়,এ বিষয়ে সরজমিন গিয়ে জানা যায় সড়কের করুণ দশা দীর্ঘদিনের,এলাকার বাসিন্দা অনেকেই মতামত তুলে ধরেছেন বিশিষ্ট শিক্ষানূরাগী সালেহ আহমদ বলেন আমরা দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য দাবি জানাচ্ছি,কিন্তু কিছুতেই কেউ কর্ণপাত করেন নি,এলাকাবাসীর দাবি অতি তাড়াতাড়ি যেন রাস্তাটি পাকাকরণ ও ভেঙে যাওয়া অংশ মেরামতের জন্য উপযুক্ত ব্যবসহা নেওয়া হয়,তারা আরও বলেন আমরা দীর্ঘদিন ধরে মেঘ বৃষ্টির দিন ছাড়া ও বিকল্প রাস্তা না থাকায় চরম দূর্ভোগ সহ্য করে এ রাস্তা দিয়ে ঢাকা সিলেট মহাসড়ক হয়ে সিলেট শহর ও ওসমানী নগর থানার বিভিন্ন হাট বাজারে যাই,আমাদের কষ্টের সীমা নেই তাই দেখারও যেন কেউ নেই।
এবিষয়ে জানতে চাইলে সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক বলেন আমি উপজেলা চেয়ারম্যানকে নিয়ে এবিষয়ে স্হানীয় সংসদ সদস্যের কাছে বিষয়টি তুলে ধরার চেষ্টা করব।বিশ্বনাথ টু কুরুয়া বাজার রাস্তার করুণ দশায় বিপাকে দুই উপজেলাবাসী!

এবিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্টা এস এম নুনু মিয়া বলেন আমি নির্বাচিত হয়েই গত বছর কাচা অংশ পলি দিয়ে সাময়িক চলাচলের জন্য ব্যবসহা করেছিলাম,রাস্তাটির অবশিষ্ট অংশ টেন্ডার হওয়ার কথা,তবে বিষয়টি নিয়ে স্হানীয় সংসদ সদস্যের সাথে আলাপ করব।সিলেট ২ বিশ্বনাথ ওসমানী নগরের সংসদ সদস্য গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি মোকাববির খান এমপির সাথে কথা বলতে চাইলে তার মুঠো ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category